শুক্রবার, ডিসেম্বর ২, ২০২২

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত

spot_img
Homeদেশজুড়েমাদক সেবনে বাধা দেওয়ায় কলেজ দপ্তরিকে কুপিয়ে খুন

মাদক সেবনে বাধা দেওয়ায় কলেজ দপ্তরিকে কুপিয়ে খুন

টাঙ্গাইলের নাগরপুরে মাদক সেবনে বাধা দেওয়ায় এলাকার চিহ্নিত মাদকসেবীদের হাতে নৃশংসভাবে খুন হয়েছে অগ্নিবানী আইডিয়াল কলেজজের দপ্তরি। এই ঘটনায় আহত হয়েছেন নিহতের এক ছেলে ও এক ভাতিজা। আহতদের একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। হতাহতের বিষয়টি নিশ্চিত করছেন নাগরপুর থানার ওসি মো. সাজ্জাদ হোসেন।

নিহতের নাম সুলতান হোসেন স্বপন(৫৫)। তিনি শ্যামপুর গ্রামের মৃত আ. হামিদ মিয়ার ছেলে। আহত আ্জমীর(২৮) হলেন নিহত স্বপনের ছেলে। নিহতের ভাতিজা পলাশ(২০)।

শনিবার (২৯ অক্টোবর) রাত ৮ টার দিকে উপজেলার গয়হাটা ইউনিয়নের ঘুনি সিংজোড়া শহীদ তিতুমির বাজারে এ ঘটনাটি ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী, পরিবার ও পুলিশ জানায়, শনিবার রাত ৮টার দিকে ঘুনি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে চার যুবক— রানা, সোলাইমান, আলী ও সাজ্জাদ মাদকসেবন করছিল। এ সময় নিহতের (স্বপন) ছেলে পলাশ ওই চার যুবককে স্কুল মাঠে মাদকসেবন না করার জন্য নিষেধ করেন। এতে মাদকসেবীরা ক্ষিপ্ত হয়ে পলাশকে ধাওয়া করে। তিনি আত্মরক্ষায় দৌড়ে ওই বাজারে পাসুর চা দোকানে গিয়ে আশ্রয় নেন। সেখানে বসে চা পান করছিল পলাশের বাবা স্বপন।

এ সময় মাদকসেবী ওই চার যুবক দেশীয় অস্ত্র নিয়ে স্বপনের ওপর হামলা করে। ঘটনাস্থলে উপস্থিত প্রতিবেশী চাচাতো ভাই আজমীর এগিয়ে এলে তাকেও মাদকসেবীরা হামলা করে।
পরে এলাকাবাসী আশঙ্কাজনক অবস্থায় স্বপন ও আজমীরকে নাগরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ইমরান হোসেন কলেজ দপ্তরি স্বপনকে মৃত্যু ঘোষণা করেন।

আহত আজমিরের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে টাঙ্গাইল সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। আহত অপর যুবক শিমুলকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে, নাগরপুর থানার ওসি মো. সাজ্জাদ হোসেন জানান, এ ঘটনায় ৫ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা আরও ৭ জনকে আসামি করে থানায় হত্যা মামলা করা হয়েছে। এ পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি। এই ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

ournews24.com এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের পছন্দ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

সর্বশেষ খবর