শনিবার, জানুয়ারি ২৮, ২০২৩

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত

spot_img
Homeজাতীয়সুবাহ’র করা পর্নোগ্রাফি মামলায় ইলিয়াসের অব্যাহতি

সুবাহ’র করা পর্নোগ্রাফি মামলায় ইলিয়াসের অব্যাহতি

অভিনেত্রী শাহ হুমায়রা সুবাহ’র করা পর্নোগ্রাফি আইনের মামলায় তার স্বামী গায়ক ইলিয়াস হোসাইনসহ দুইজনকে অব্যাহতি দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (২৫ অক্টোবর) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ মোস্তফা রেজা নূর এ আদেশ দেন। অব্যাহতিপ্রাপ্ত আরেকজন হলেন- কারিন নাজ। তাকে ইলিয়াসের কথিত স্ত্রী ও মডেল হিসেবে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছিল।

এদিন পর্নোগ্রাফি আইনের মামলায় বাদী সুবাহ’র উপস্থিতির জন্য ধার্য ছিল। তবে আসামি ইলিয়াসের সঙ্গে এক ধরনের আপোস হয়ে যাওয়ায় তিনি আদালতে উপস্থিত হননি। এরপর বিচারক পর্নোগ্রাফি আইনের মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন গ্রহণ করে গায়ক ইলিয়াস হোসাইন ও কারিন নাজকে অব্যাহতি দেন।

এরআগে, গত ১৬ আগস্ট মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের উপ-পরিদর্শক আসাদুল ইসলাম আসামি ইলিয়াস ও কারিন নাজকে অব্যাহতির আবেদন দিয়ে পর্নোগ্রাফি আইনের মামলায় চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। প্রতিবেদনে তদন্তকারী কর্মকর্তা উল্লেখ করেন, মামলার এজাহারে উল্লেখিত ও সংযুক্ত স্কিনশট সংক্রান্ত লিংকগুলোর ভিডিও ক্লিপে সংরক্ষিত বক্তব্যগুলো কুরুচিপূর্ণ ও মানহানিকর বলে মনে হয়নি। লিংকগুলোতে কাউকে ভয়ভীতি অথবা হুমকি দিয়েছেন মর্মে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। এছাড়া আসামিদের বিরুদ্ধে কোনো দালিলিক ও মৌখিক সাক্ষ্য-প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

মামলার আসামি ইলিয়াস হোসেনের সঙ্গে বাদীর সংসার করাকালীন সুসম্পর্কের কারণে সুকৌশলে অন্তরঙ্গের মুহূর্ত ও গোসলের ছবি এবং ভিডিও সংরক্ষণ করে রাখেন আসামি ইলিয়াস। স্বামী স্ত্রীর মধ্যে কলহের জেরে ইলিয়াস তার স্ত্রীকে ঘায়েল করার জন্য ও মানসিকভাবে অশান্তির জন্য হোয়াটসঅ্যাপ নম্বরে এসব ছবি পাঠান। তবে একাধিকবার নোটিশ ও মোবাইলফোনে যোগাযোগ করেও ঘটনা প্রমাণের মতো কোনো সাক্ষ্যপ্রমাণ হাজির করতে পারেননি মামলার বাদী সুবাহ। বাদী ফোনে জানান যে, তার মোবাইলের হোয়াটসঅ্যাপে কোনো তথ্য নেই এবং তা ডিলিট হয়ে গেছে। মূলত আসামির সঙ্গে আপোস হওয়ায় মামলায় এগোতে চান না মডেল সুবাহ।

এরআগে, গত ১১ জানুয়ারি বনানী থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা ও পর্নোগ্রাফি আইনে গায়ক ইলিয়াস হোসাইনসহ দুজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন অভিনেত্রী শাহ হুমায়রা সুবাহ। তারআগে ৩ জানুয়ারি ইলিয়াস হোসাইনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন সুবাহ। তবে ১০ লাখ টাকায় আপোস হয়ে যাওযায় গত ২৭ জুলাই এ মামলার রায়ে ইলিয়াসকে খালাস দেন আদালত।

ournews24.com এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের পছন্দ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -spot_imgspot_img

সর্বশেষ খবর

- Advertisment -spot_imgspot_img