রবিবার, অক্টোবর ২, ২০২২

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত

spot_img
Homeবিনোদনহিরো আলমের মুচলেকা, আর ‘বিকৃতভাবে’ রবীন্দ্র-নজরুলসংগীত গাইবেন না

হিরো আলমের মুচলেকা, আর ‘বিকৃতভাবে’ রবীন্দ্র-নজরুলসংগীত গাইবেন না

কয়েকজনের অভিযোগের ভিত্তিতে বাংলাদেশে আলোচিত আশরাফুল আলম সাঈদ ওরফে হিরো আলমকে জিজ্ঞাবাসাদ করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি)। জিজ্ঞাসাবাদে তিনি আর কখনো অনুমতি ছাড়া পুলিশের পোশাক পরবেন না এবং বিকৃত করে রবীন্দ্র ও নজরুলসংগীত গাইবেন না বলে জানিয়েছেন। এ বিষয়ে ডিবিকে মুচলেকা দিয়েছেন হিরো আলম।

ডিএমপির সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগের ডাকে বুধবার সকালে মিন্টো রোডের ডিবি কার্যালয়ে উপস্থিত হন হিলো আলম। সেখানে তাঁকে নানা বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের সম্মেলনকক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার(ডিবি) মোহাম্মদ হারুন-অর-রশিদ।
মোহাম্মদ হারুন-অর-রশিদ বলেন, হিরো আলমের বিরুদ্ধে ডিবি সাইবার ক্রাইম বিভাগের কাছে অজস্র অভিযোগ। এই পরিপ্রেক্ষিতে আজ তাঁকে ডাকা হয়।

মোহাম্মদ হারুন-অর-রশিদ বলেন, ‘হিরো আলমের কথা আর কী বলব! পুলিশের যে পোশাক, যে ধরন, ডিআইজি–এসপির যে পোশাক, তা না পরে কনস্টেবলের পোশাক পরে ডিআইজি, এসপির অভিনয় করছে। ডিএমপির কমিশনার শিল্পী সমিতিতে বলেছেন, পুলিশের পোশাক পরে অভিনয় করতে হলে অনুমতি নিতে হবে। হিরো আলম শিল্পী সমিতির সদস্যও নন। অথচ তিনি অনুমতি ছাড়া পুলিশের পোশাক পরছেন। কনস্টেবলের ড্রেস পরে এসপি ডিআইজির অভিনয় করছে। এটা তিনি জানেনও না।’

হিরো আলমের গাওয়া রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও নজরুল ইসলামের গানের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপক আলোচনার সৃষ্টি করে। এ নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়।
আজ সে বিষয়ে হারুন-অর-রশিদ বলেন, ‘বাংলাদেশের যে কৃষ্টি ও সংস্কৃতি রয়েছে, তাতে আমরা গান গাই-শুনি, রবীন্দ্র ও নজরুলসংগীত। কিন্তু হিরো আলম যেভাবে গান, তাতে এসব কৃষ্টি-কালচার পুরোটাই বদলে দিয়েছেন। আমরা জিজ্ঞাসা করেছি, ‘আপনি এসব কেন করেন?’ উনি আমাদের বলেছেন, ‘আমি আর জীবনে এসব করব না। আমি আর পুলিশের পোশাক পরব না। কোনো ধরনের রবীন্দ্র–নজরুলসংগীত গাইব না।’

হিরো আলম নামে অধিক পরিচিতি পাওয়া এই ব্যক্তি বাংলাদেশি মিউজিক ভিডিওর মডেল, অভিনেতা ও গায়ক হিসেবে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আলোচিত ও সমালোচিত। ২০১৮ সালে হিরো আলম একাদশ সংসদ নির্বাচনে বগুড়া-৪ আসনে প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়ে পুনরায় আলোচনায় আসেন।

ডিএমপির সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগ সূত্রে জানা যায়, একাধিক অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে আজ বুধবার হিরো আলমকে ডিবি কার্যালয়ে ডাকা হয়। এ জন্য আজ তিনি মিন্টো রোডের ডিবি কার্যালয়ে উপস্থিত হন। তাঁকে নানা অভিযোগে বিশদ জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। সর্বশেষ বুধবার বেলা পৌনে ১টা পর্যন্ত হিরো আলম ডিবি কার্যালয়েই ছিলেন।

আওয়ারনিউজটোয়েন্টিফোর.কম এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের পছন্দ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

সর্বশেষ খবর