মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত

spot_img
Homeদেশজুড়েময়লা-আবর্জনায় ভরাট হয়ে যাচ্ছে সুজানগরের বান্নাই খাল

ময়লা-আবর্জনায় ভরাট হয়ে যাচ্ছে সুজানগরের বান্নাই খাল

সুজানগর (পাবনা) সংবাদদাতা: পাবনার সুজানগর পৌর শহরের পার্শ্ববর্তী এক সময়ের স্রোতস্বীনি ঐতিহ্যবাহী বান্নাই খাল ময়লা-আবর্জনায় ভরাট হয়ে যাচ্ছে। সেই সঙ্গে খালটির পানি প্রবাহও বন্ধের উপক্রম হয়ে পড়েছে।

পৌরসভার চরভবানীপুর গ্রামের বাসিন্দা আব্দুর রশিদ মাস্টার জানান, ৬০’র দশক থেকে ৭০’র দশক পর্যন্ত বান্নাই খালটি ছিল স্রোতস্বীনি নদীর ন্যায় প্রবাহমান এবং বেশ গভীর। এ সময় পদ্মা নদীর সাথে বান্নাই খালের সংযোগ থাকায় এলাকাবাসী খালটিকে ঘিরে ব্যবসা-বাণিজ্য, কৃষি সেঁচ এবং মৎস্য আহরণসহ নানা সুযোগ সুবিধা ভোগ করতেন। কিন্তু ৭০’র দশকের শেষের দিকে বালু ও পলি জমে খালটির সাথে পদ্মা নদীর সংযোগ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় খালটি তার যৌবন হারিয়ে ফেলে। এর পর কালের পরিক্রমায় এলাকার কতিপয় প্রভাবশালী ব্যক্তি খালের কিছু অংশ দখল করে বসতি গড়ে তোলায় স্রোতস্বীনি বান্নাই খাল শীর্ণ ডোবায় পরিণত হয়।

বান্নাই পাড়ের বাসিন্দা লিয়াকত আলী বলেন পৌর বাজারের হোটেল ব্যবসায়ীরা প্রতিনিয়ত হোটেলের উচ্ছিষ্ট খাবার ও অন্যান্য ময়লা-আবর্জনা উক্ত খালে ফেলে রাখে। তাছাড়া বাজারের এক শ্রেণির কলা ব্যবসায়ী খালটিতে অবাধে ফেলে রাখেন কলার পাতা এবং কলার কাঁদি। এতে ঐতিহ্যবাহী ঐ খাল ভরাট হওয়ার পাশাপাশি পানি প্রবাহ বন্ধের উপক্রম হয়ে পড়েছে। সেই সঙ্গে ঐ সকল ময়লা-আবর্জনার পচা দুর্গন্ধে পৌর বাজারসহ আশ-পাশের পরিবেশ দূষিত হচ্ছে। এলাকার সচেতন মহল মনে করেন এভাবে ময়লা-আবর্জনা ফেলা হলে ভবিষ্যতে খালটি সম্পূর্ণ ভরাট হয়ে যেতে পারে। হারিয়ে যেতে পারে এর অতীত ঐতিহ্য।

এ ব্যাপারে পৌর কাউন্সিলর মনসুর আলী মন্টু শেখ বলেন ব্যবসায়ীদের বার বার নিষেধ করা সত্তে¡ও তারা ওই খালে ময়লা-আবর্জনা ফেলছে। শিগগিরই আইন প্রয়োগ করে ময়লা-আবর্জনা ফেলা বন্ধ করা হবে।

আওয়ারনিউজটোয়েন্টিফোর.কম এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের পছন্দ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

সর্বশেষ খবর