মেদ ঝরানো যায় কিভাবে! তাহলে নিয়মটি জানি?

28

স্বাস্থ্য সংবাদ: উৎসবের মৌসুম হোক বা বেড়ানোর, কিংবা বিয়ে,জন্মদিনে বাঙালীর  সব খাবারে সব সময়ই স্বাদ খুঁজতে ব্যস্ত। আর এর খেসারত ওদিতে  বাঙালির শরীর। পর পর অনেকগুলো নিমন্ত্রণ রক্ষার পরিস্থিতি আসুক বা বেড়াতে গিয়ে অনেক দিনের ডে আউট, খাওয়াদাওয়ার নিয়মকানুন নষ্ট হয়ে শরীরের দফারফা। একবারে অনেকটা ওজন বেড়ে যাওয়ার সমূহ সম্ভাবনা তৈরি হয় এ সবের হাত ধরেও।

বাড়ি ফিরেই ডায়েটে ফিরেছেন, ভাবছেন তা হলেই কমে যাবে বাড়তি ওজন? এমন হলে ভুল ভাবছেন। দীর্ঘ অনিয়মের পর হঠাৎই নিয়মে ফিরলেই ওজন কমবে এমনটা একেবারে নয়।

পুষ্টিবিদদের মতে, শরীর এক রকম অভ্যাস ভেঙে হঠাৎই কোনও অনিয়মে অভ্যস্ত হয়ে গেলে, তার পরেই আবার কঠোর নিয়মে ফিরতে পারে না। নতুন করে নিয়মের সঙ্গে অভ্যস্ত হতেও সময় নেয়, তত দিনে যা ক্ষতি হওয়ার হয়ে যায়। ঘন ঘন নিয়ম বদলানোয় শরীর খারাপও হয়। তাই নিয়মে ফিরতে হয় ধীরে ধীরে, কয়েকটি পদক্ষেপের মাধ্যমে। জানেন কি, এমন অনিয়মে মেদ জমে গেলে কী ভাবে তাকে ফের ঝরিয়ে ফেলা যায়?

ভিটামিন ডি: এই বিষয়ের জন্য সূর্যালোকের উপর নির্ভর করা ছাড়া উপায় নেই। কাজের ফাঁকে রোদ লাগান শরীরে। সকালের হালকা রোদ যতটা গায়ে লাগাতে পারবেন, ততই ভিটামিন ডি-এর অভাব পূরণ হবে ও ওজন কমার হার বাড়াবে।

বাইরের খাবার এড়ান: নিয়মে ফিরতে প্রথম থেকে কঠিন ডায়েট নয়। বরং নিমন্ত্রণ বাড়ি মিটলে বা বেড়িয়ে ফিরে আসার পর বাড়ির খাবারে অভ্যস্ত হন ধীরে ধীরে। ভাত বাদ দেওয়ার রুটিনে ফেরার আগে সব সব্জি দিয়ে খিচুড়ি অথবা মাছ-চিংড়ি-চিকেনের টুকরো ও নানা সব্জি দিয়ে বানানো রাইস রাখতে পারেন ডায়েটে। বাড়িতে বানানো ডাল, সব্জি, মাছ-মাংসেই ভরসা করুন এ সময়। তবে ভাতের পরিমাণ কমান প্রথম থেকেই। ক্যালোরির অঙ্কটা কষুন, সেই অনুযায়ী খান। ধীরে ধীরে ফিরুন আগের নিয়মে।

জল: অনিয়ম কাটাতে জলকে অস্ত্র করুন। শরীরকে যত তাড়তাড়ি ডিটক্সিফাই করতে পারবেন, ততই ভাল। শরীরের চাহিদা অনুযায়ী জলের জোগান দিন তাকে। এতে শরীর জল জমিয়ে রেখে ওজন বাড়াতে পারবে না।

প্রোটিন: বাড়ির খাবারই খান, অসুবিধা নেই। খুব নিয়ম মেনে, কঠিন ডায়েট প্রথম থেকে না করে বরং খাবারের পাতে প্রোটিনের মাত্রা বাড়িয়ে দিন। তেল-মশলা কমিয়ে সেদ্ধ ডিম, ছোলা, বাদাম ইত্যাদি শুরু করুন ফের। মাছ বা মাংসের ক্ষেত্রে সরাসরি স্ট্রু তে না ফিরলেও হালকা ঝোল দিয়ে শুরু করুন নতুন অভ্যাস।

মতামত জানান

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here