মেট্রোয় ফের আগুন,দমদম স্টেশনে আতঙ্ক

130

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃকলকাতা মেট্রোয় ফের আগুন আতঙ্ক। নোয়াপাড়া থেকে কবি সুভাষগামী একটি নন এসি ট্রেন দমদম স্টেশনের প্ল্যাটফর্ম ছাড়তেই আগুনের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনায় অসুস্থ এক যাত্রী। ব্যাহত হয় মেট্রো সেবা শুশ্রুষা ।প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই ট্রেন থামিয়ে যাত্রীদের নামিয়ে দেন মেট্রোর কর্মীরা।

আজ বৃহ্স্পতিবার নোয়াপাড়া থেকে একটি নন এসি ট্রেন কবি সুভাষের দিকে যাচ্ছিল। ১০.৫৪ মিনিটে দমদম থেকে ছাড়ার পরই সামনের দিক থেকে তিন নম্বর কামরায় ধোঁয়া বেরোতে শুরু করে। মেট্রোর কর্মীরাই সেই ধোঁয়া দেখে চালককে সতর্ক করেন। ভিতরে ধোঁয়া ছড়িয়ে পড়ায় তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে যাত্রীদের মধ্যে। চালকও বুঝতে পেরে সামান্য এগিয়েই ট্রেনটি থামিয়ে দেন। প্ল্যাটফর্ম থেকে চারটি কামরা বাইরে বেরিয়ে গিয়েছিল। ওই অবস্থায় দাঁড়িয়ে পড়ে ট্রেন।

যাত্রীদের মধ্যে আতঙ্কে হুড়োহুড়ি পড়ে যায়। তবে কিছুক্ষণের মধ্যেই নিরাপদে ট্রেন থেকে তাঁদের প্ল্যাটফর্মে নামিয়ে দেন মেট্রো কর্তৃপক্ষ। এসময়ে ধোঁয়ায় অসুস্থ হয়ে পড়েন হাসনাবাদের বাসিন্দা এক তরুণী। তাঁকে আর জি কর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এই ঘটনার জেরে নোয়াপাড়া থেকে কবি সুভাষগামী মেট্রোর পরিষেবা বেশ কিছুক্ষণের জন্য ব্যাহত হয়। পরে ওই ট্রেনটি সরিয়ে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হয় মেট্রো চলাচল। কী কারণে আগুন লেগেছে, তা জানতে তদন্ত শুরু করেছেন মোট্রোর আধিকারিকরা। তবে মেট্রো আধিকারিক এবং যাত্রীরা মনে করছেন, নন এসি কামরা হওয়ায় বড় বিপদের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছেন তাঁরা।

মেট্রোর জনসংযোগ আধিকারিক ইন্দ্রাণী বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‘আমাদের একজন কর্মী স্টেশন থেকে রেকটি বেরোনর সময় ফুলকি এবং ধোঁয়া দেখতে পান। তিনি সতর্ক করেন। সঙ্গে সঙ্গে ট্রেন থামিয়ে যাত্রীদের নিরাপদে বাইরে নিয়ে আসা হয়। ওই রেকটি পাঠিয়ে দেও‌য়া হয় কারশেডে।

কলকাতা সময় সকাল ১১.১৪ মিনিটে ফের মেট্রো পরিষেবা চালু করা হয়।’’ ইন্দ্রানী এ দিন স্বীকার করেন মেয়াদ উত্তীর্ণ পুরনো রেক বলেই সমস্যা। আমরা রক্ষণাবেক্ষণ করে চালাচ্ছি। তবে তিনি জানিয়েছেন, নতুন রেক এসে গিয়েছে। সেগুলি নামলেই এই সমস্যা দূর হবে।

গত ২৮ জানুয়ারি রবীন্দ্র সদন এবং ময়দান স্টেশনের মাঝে একটি এসি মেট্রোয় আগুন লাগে। ওই ঘটনায় অসুস্থ হয়ে পড়েন অন্তত ৪৭ জন যাত্রী। তার প্রায় এক মাসের মাথায় ফের আগুনের আতঙ্কে প্রশ্নের মুখে কলকাতার মেট্রো পরিষেবা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here