মশলাদার জংলি মটন রান্না পদ্ধতি গুলো জেনেনি

140

আমাদের রান্নাঘরঃ আমরা রাজস্থানের বালুপরিবেশে স্বাদকোরককে সতেজ রাখতে মটনের পদ ‘জংলি মটন’ অত্যন্ত জনপ্রিয়। কলকাতায় বিভিন্ন রেস্তরাঁয় এমন পদ থাকলেও এই পদের রেসিপি অনেকেরই অজানা।তাই আসুন আমরা জেনে নেই মশলাদার জংলি মটন রান্না এবং পরিবেশন’র পদ্ধতি !

নামেই মালুম, এই পদ বেশ মশলাদার। রাজস্থানী মশলা ও লঙ্কার ঝাঁজে মটনের এই পদ ভোজনরসিকদের কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয়। রেস্তরাঁর জন্য হাপিত্যেশ অপেক্ষা ভুলে বাড়িতেই বানিয়ে নিতে পারেন এটি।

এই পদটি রান্নার ক্ষেত্রে ম্যারিনেশন খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি পদক্ষেপ। ম্যারিনেশন যত ভাল হবে এই পদের স্বাদও ততই বাড়বে। দেখে নিন এই পদ রান্নার উপকরণ ও পদ্ধতি।

উপকরণ:

ম্যারিনেশনের জন্য

মটন: ১ কেজি ,সরষের তেল: দেড় টেবল চামচ হলুদ গুঁড়ো: ১ চা চামচ

লেবুর রস: দেড় টেব্‌ল চামচ ,লাল লঙ্কা গুঁড়ো: ১ টেব্‌ল চামচ ,শুকনো লঙ্কা: ৭-৮টা, ,কাশ্মীরি মির্চ: ৭-৮টা

ছোট এলাচ: ৫-৬টা৷ ,মটন মশলা: দু’চামচ

গরম মশলা: দু’চামচ ,গোটা ধনে: ৩ টেব্‌ল চামচ ,ছোট এলাচ-৫,৬টা৷

রান্নার জন্য:

সর্ষের তেল: ৪ টেব্‌ল চামচ ,দারচিনি: ২-৩ টি

তেজপাতা: ২-৩টি ,গোটা জিরে: ১ টেবল চামচ ,রসুন: ১০-১২ কোয়া

গোটা গোলমরিচ: আধ টেব্‌ল চামচ, পিঁয়াজ-৪-৫টা

নুন: স্বাদ মতো ,ধনেপাতা: একমুঠো৷

প্রণালী: সব মশলা মটনে মাখিয়ে আধ ঘণ্টা ম্যারিনেট করে রাখুন৷ একটি পাত্রে  জল গরম করে তাতে শুকনো লঙ্কা, এলাচ, গোলমরিচ, গোটা ধনে দিন। এ বার তা ফুটে উঠলে জলটা ছেঁকে নিন৷ জলেফোটানো গোটা গোটা মশলা একসঙ্গে ব্লেন্ডারে বেটে নিন৷

এর পর কড়ায় সরষের তেল গরম করে তেজপাতা, গোটা গোলমরিচ, দারচিনি, গোটা জিরেদিন৷ এর পর এতে পিঁয়াজ কুচনো দিয়ে কিছু ক্ষণ নাড়াচাড়া করুন। পিঁয়াজ সোনালি হয়ে এলে রসুন বাটা যোগ করে আবার কিছু ক্ষণ নেড়ে নিন। এ বার এতে ম্যারিনেশন করা মটন যোগ করে ঢিমে আঁচে ভালকরে কষুন। কষার পর জল শুকিয়ে মাখো মাখো হয়ে এলে আগে থেকে ছেঁকে রাখা জল আধ কাপ দিয়ে মটনে মিশিয়ে মিনিট কুড়ি সেদ্ধ হতে দিন৷ আধসেদ্ধ হয়ে এলে বাটা মশলার অর্ধেকটা এতে মিশিয়ে নিন। আবার খানিক ক্ষণ ফুটতে দিন। জল কমে এলে বাকি বাটা মশলা ও মশলা ছাঁকা জল মিশিয়ে দিন। এ বার আধ ঘণ্টা মতো ঢিমে আঁচে রেকে ফুটতে দিন। সব শেষে গরম মশলার গুঁড়ো ও মটন মশলা মিশিয়ে নামিয়ে নিন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here