মমতার পাশে রাহুল-কেজরী-তেজস্বী-অখিলেশ-চন্দ্রবাবু-দেবগৌড়া

69

আন্তর্জাতিক খবরঃ কেন্দ্রের বিরুদ্ধে চরম সংঘাতের পথে প্রায় সব বিজেপি-বিরোধী দলের সমর্থন পেলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সিবিআই বনাম কলকাতা পুলিশের ‘দ্বৈরথে’র নজিরবিহীন ভাবে ধর্না শুরুর পর থেকেই মমতার সমর্থনে মুখ খোলেন দেশের শীর্ষ রাজনৈতিক নেতারা।

সারদা তদন্তের অঙ্গ হিসাবে রবিবার সন্ধ্যায় কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের বাড়িতে সিবিআই আধিকারিকেরা হানা দেওয়ার পর থেকেই নাটকীয় সংঘাতের সূত্রপাত। কলকাতা পুলিশের হাতে সিবিআই বাধা পেতেই সেই সংঘাত আরও চরম রূপ নেয়। গোটা ঘটনা  অন্য মাত্রা পায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী স্বয়ং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সন্ধ্যায় সিপি-র বাসভবনে পৌঁছলে। এর পর রাতেই ধর্মতলার মেট্রো চ্যানেলে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ধর্নায় বসেন মমতা। যাকে ‘সত্যাগ্রহ’ বলে অভিহিত করেছেন তিনি। ধর্নামঞ্চ থেকেই নরেন্দ্র মোদী সরকারের বিরুদ্ধে একের পর এক তোপ দাগতে থাকেন তিনি। কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে এ রাজ্যে রাজনৈতিক অভ্যুত্থানেরও অভিযোগ করেন মমতা। এর পরই রাজীব-কাণ্ডের নিন্দা করে বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে সরব হয় প্রায় সব বিরোধী দলগুলি।
মমতার পক্ষ নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীওয়াল থেকে শুরু করে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গাঁধী। সরব হন দেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী এইচ ডি দেবগৌড়া। মুখ খোলেন সমাজবাদী পার্টির সভাপতি তথা উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব। অন্ধ্রপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নায়ডু, আরজেডি নেতা তেজস্বী যাদব, কংগ্রেস নেতা আহমেদ পটেল, মায়াবতী— একের পর এক রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের সমর্থন পান মমতা। বার্তা দেন এ রাজ্যের প্রাক্তন রাজ্যপাল গোপালকৃষ্ণ গাঁধীও। মমতা বলেন, ‘‘সবাই বলছেন তাঁরা সঙ্গে আছেন।’’ লোকসভা নির্বাচনের আগে যখন একজোট হওয়ার চেষ্টা করছে বিরোধী দলগুলি, তখন মমতার এই প্রতিবাদ আরও অক্সিজেন যোগান দিল বিজেপি-বিরোধী মঞ্চকে, এমনটাই মত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশের। রাত ৮টা বেজে ৫৫ মিনিট: মমতাকে সমর্থন করে টুইট করলেন অখিলেশ যাদব। নিজের টুইটার হ্যান্ডলে তিনি লেখেন, ‘দেশে উৎপীড়ন চালাচ্ছে বিজেপি সরকার। সিবিআইয়ের অপব্যবহার করছে। দেশের সংবিধান ও মানুষের স্বাধীনতা বিপন্ন হতে বসেছে। এই নিপীড়ণ‌ের বিরুদ্ধে  যে ভাবে ধর্নায় বসেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, তাতে পূর্ণ সমর্থন রয়েছে আমার। বিজেপিকে পরাজিত করতে এই মুহূর্তে একজোট দেশবাসী ও বিরোধী নেতারা।’ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমর্থনে টুইট দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীওয়ালের। তিনি লেখেন, ‘দেশের গণতন্ত্র এবং যুক্তরাষ্ট্রীয় ব্যবস্থা নিয়ে  রীতিমতো ছেলেখেলা করছেন মোদীজি। কয়েক বছর আধা সামরিক বাহিনী পাঠিয়ে দিল্লির অপরাধ দমন শাখাকে আটক করিয়েছিলেন। আজ আবার এই ঘটনা ঘটিয়েছেন। মোদী-শাহ জুটি ভারত এবং গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থার ক্ষেত্রে বিপজ্জনক। আজকের ঘটনার তীব্র নিন্দা করছি।’নেতরা এভাবেই তাদের মতামত ব্যাক্ত করেন।

মতামত জানান

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here