ভারতের আমরা সবাই পেশাদার ক্রিকেটার

64

ক্রিকেট সংবাদ: বিশ্বকাপের আগেই আইপিএল। তাই ভারতীয় ক্রিকেটারদের ওয়ার্কলোড নিয়ে চর্চা হচ্ছে ক্রিকেটমহলে। আশঙ্কা রয়েছে যে আইপিএলের দেড় মাসের ধকল ক্রিকেটারদের ফিটনেসে প্রভাব ফেলবে না তো!

বিশ্বকাপে যে ক্রিকেটাররা যাবেন, তাঁদের আইপিএলে ফ্র্যাঞ্চাইজিরা কী ভাবে ব্যবহার করছেন, সেদিকেও আগ্রহ রয়েছে ক্রিকেটমহলের।বলা হচ্ছে, ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের তরফে কোনও লিখিত নির্দেশ যায়নি ক্রিকেটারদের বিশ্রাম দেওয়ার ব্যাপারে। ফলে, আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহালি এই ব্যাপারে প্রত্যেক ক্রিকেটারকেই সতর্ক থাকার কথা বলেছেন।

এই পরিস্থিতিতেই চেন্নাই সুপার কিংসের কেদার যাদবের ফিটনেসের দিকে নজর থাকবে ক্রিকেটমহলের। কারণ, অতীতে বেশ কয়েকবার চোটের কবলে পড়েছেন তিনি। বিশ্বকাপের আগে আবার চোট পাবেন না তো? কেদার বলেছেন, “আমার ওয়ার্কলোড তো প্রধানত বোলিংয়ের সঙ্গে জড়িত। তবে চেন্নাই সুপার কিংসে মনে হয় না জাতীয় দলের মতো অতটা বল করতে হবে।

আর আমরা সবাই পেশাদার ক্রিকেটার। কী ভাবে শরীরের যত্ন নিতে হয়, তা আমাদের জানা।এই দুই মাসের সময়ে আইপিএলে প্রত্যেক ম্যাচের ল  পর কী ভাবে শরীরের যত্ন নিতে হয়, তা আমাদের জানা। একটা ট্রেনিং সেশনে ফিটনেসের উন্নতি হয় না।

৩৩ বছর বয়সী কেদার পরিষ্কার করে দিয়েছেন যে বিশ্বকাপে খেলা প্রত্যেক ক্রিকেটারেরই স্বপ্ন। তবে তার আগের দু’মাস চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে খেলাতেই তাঁর ফোকাস থাকছে।

কেদার যাদবের কথায়, “ভারতীয় ট্রেনার ও ফিজিয়োর থেকে আমরা কিছু নোট পেয়েছি। আর সেটা আমাদের অনুসরণ করতে হবে। ভারতের হয়ে যাঁরা খেলেন, তাঁদের সবারই স্বপ্ন থাকে বিশ্বকাপে খেলা। আর আমিও এর ব্যতিক্রম নই। তবে এই দু’মাস সিএসকে-ই আমার ফোকাস। এই বছর চ্যাম্পিয়ন হওয়ার আশা রয়েছে। সুস্থ শরীরে নিজের দক্ষতার পুরোটা দিয়ে দলের কাজে আসতে চাইছি।”

মতামত জানান

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here