বকেয়া বেতনের দাবিতে বিআরটিসির জোয়ার সাহারা ডিপোতে তালা

131
বকেয়া বেতনের দাবিতে বিআরটিসির জোয়ার সাহারা ডিপোতে তালা

বকেয়া বেতনের দাবিতে চালক-শ্রমিকরা মিলে বিআরটিসির জোয়ার সাহারা ডিপোতে তালা ঝুলিয়েছেন। তাই আজ মঙ্গলবার সকাল থেকে জোয়ার সাহারা ডিপোর কোনও বাস রাস্তায় নামেনি। ডিপোর ব্যবস্থাপক মো. নূর আলম জানান, চালক-শ্রমিকদের ধর্মঘটের কারণে মঙ্গলবার সকাল থেকে সব কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। তাদের কিছু দাবি-দাওয়া আছে। এজন্য সকাল থেকেই তারা বিক্ষোভ করছে। জানা গেছে, এর ফলে আবদুল্লাহপুর-মতিঝিল, গাবতলী-গাজীপুর, কুড়িল বিশ্বরোড-পাঁচদোনা রুট এবং বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানের স্টাফ বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। আন্দোলনকারীদের একজন নাম প্রকাশ না করে আরটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘কর্মকর্তারা আশ্বাস দিলেও বকেয়া বেতন পরিশোধ করছে না। আমাদের নয় মাসের বেতন বকেয়া। বাড়িওয়ালা প্রতিদিন কথা শোনায়। বাচ্চাদের স্কুলের বেতন দিতে পারছি না। এইভাবে আর কতদিন চলবো। জোয়ার সাহারার মতো ঢাকার অন্যান্য ডিপোতেও কর্মীদের বেতন বকেয়া আছে বলে আন্দোলনকারীরা জানান। জানা গেছে, বিআরটিসির জোয়ারসাহারা ডিপোতে একতলা, দোতলা এবং শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত মিলিয়ে ১২০টি সচল বাস রয়েছে। এসব যানবাহনের আয় থেকেই কর্মীদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করা হয়। কিন্তু কয়েক বছর ধরে লোকসানের কারণে এ ডিপোর প্রায় ৫০০ কর্মী নিয়মিত বেতন পাচ্ছেন না।উল্লেখ্য, বকেয়া বেতনের দাবিতে গতবছরের জুলাই মাসে একবার আন্দোলনে নেমেছিলেন বিআরটিসির জোয়ারসাহারা ডিপোর বাস চালকরা। সারাদেশে বিআরটিসির ২২টি ডিপো আছে। এর মধ্যে ঢাকায় ডিপো আছে ছয়টি। এসব ডিপোতে প্রায় তিন হাজার চালক, টেকনিশিয়ান, অফিস সহকারী এবং নিরাপত্তারক্ষী কাজ করেন। সরকারি বেতন স্কেলে তারা তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here