প্লাস্টিক কারখানার আগুনে নিহত বেড়ে ২২

16

ঢাকার কেরানীগঞ্জে প্লাস্টিক সামগ্রী তৈরির কারখানায় আগুনে দগ্ধ আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২২ জনে দাঁড়িয়েছে।

সর্বশেষ মারা গেছেন সাহেজুল ইসলাম সাজু নামের ১৯ বছর বয়সী ওই তরুণ। ঢাকার শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

শনিবার (২১ ডিসেম্বর) সকাল সোয়া ৮টায় চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। সাজুর শরীরের ৭০ শতাংশ আগুনে পুড়ে গিয়েছিল।

ইনস্টিটিউটের আবাসিক চিকিৎসক পার্থ শংকর পাল বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, কেরানীগঞ্জে দগ্ধ আরও ১০ জন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তাদের মধ্যে আটজন আছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের এইচডিইউতে। আর সোহাগ (২৫) ও ফিরোজকে (৩৯) শেখ হাসিনা বার্ন ইনস্টিটিউটে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে।

একতলা টিনশেড ওই কারখানায় ওয়ান টাইম প্লেট, কাপসহ প্লাস্টিকের বিভিন্ন সামগ্রী তৈরি করা হত। অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় কারখানা মালিক নজরুল ইসলামের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন নিহত একজনের ভাই।

উল্লেখ্য, গত ১১ ডিসেম্বর বিকালে কেরানীগঞ্জের চুনকুটিয়া এলাকায় প্রাইম পেট অ্যান্ড প্লাস্টিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এ নিয়ে মোট ২২ জনের মৃত্যু হল।ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা সেদিনই কারখানার ধ্বংসস্তূপ থেকে একজনের লাশ উদ্ধার করেন। বাকিরা পরে হাসপাতালে মারা যান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here