প্রিয় অভিনেত্রীকেই সৎমা হিসাবে আসল জীবনে পেলেন সারা আলী

152

বিনোদন সংবাদঃ হটি হাটি পা সেই ছোটবেলা থেকেই কারিনা কাপুরের অভিনয় ভালো লাগত সাইফ আলী খানের কন্যা সারা আলীর। ‘কভি খুশি কভি গম’ যে কতবার দেখেছেন, তার কোতো ইয়ত্তা নেই। যেখানে কারিনা ছিল তার প্রিয় চরিত্র। পর্দায় তাকে দেখেই বারবার মুগ্ধ হয়েছেন তিনি। আর তার সেই প্রিয় অভিনেত্রীকেই সৎমা হিসেবে পেলেন আসল জীবনে। খবর জি-নিউজের।

অমৃতা সিংকে ১৯৯১ সালে বিয়ে করেন সাইফ আলী খান। প্রায় ১২ বছরের বড় অমৃতার সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধা নিয়ে পতৌদি পরিবারের আপত্তি থাকলেও ছোট নবাব তা শোনেননি।

অমৃতাকে বিয়ের পর জন্ম হয় সারা ও ইব্রাহিমের। তাদের জন্মের পর পরই অমৃতা সিংয়ের সঙ্গে ২০০৪ সালে বিচ্ছেদ হয়ে যায় সাইফের।

এর পর ২০১২ সালে অভিনেত্রী কারিনা কাপুরকে বিয়ে করেন সাইফ আলী খান। কারিনা কাপুর খানকে সৎমা হিসেবে পেয়েও খুশি বলে জানান সারা আলী। একটি সংবাদমাধ্যমের সাক্ষাৎকারে সম্প্রতি সৎমা কারিনা কাপুর খান সম্পর্কে নিজের মনের কথা খুলে বলেন সাইফকন্যা সারা।

তিনি বলেন, কারিনা কাপুর খানের সব কিছুই তার ভালো লাগে। অভিনয় থেকে শুরু করে স্টাইলিং, সারা যেন বেবোর আপাদমস্তক ভক্ত। আর তাই সৎমা হলেও কখনও কারিনার প্রশংসা করতে ভোলেন না ‘কেদারনাথ’ অভিনেত্রী।

বিয়ের পরও কারিনা কাপুর খান যেভাবে ক্যারিয়ার, সংসার ও সন্তান একসঙ্গে সামলাচ্ছেন, তা তাকে মুগ্ধ করে বলেও জানান সারা।

শুধু তাই নয়, ছোটবেলা থেকেই কারিনার ভক্ত ছিলেন তিনি। সারা জানান, তার বাবা কখনও কারিনাকে তাদের সামনে এনে হাজির করে বলেননি যে, এটি তোমাদের দ্বিতীয় মা।

আর সে কারণেই কারিনার সঙ্গে ক্রমশ বন্ধুত্বের সম্পর্ক গড়ে ওঠে তাদের। শুধু সারা নন, কারিনাও যে সাইফের প্রথম পক্ষের দুই সন্তানকে আপন করে নিয়েছেন, তা বেশ স্পষ্ট অভিনেত্রীর কথা থেকেই।

সারা আলী খানের ‘কেদারনাথ’ মুক্তি পাওয়ার পর সৌন্দর্য ও বুদ্ধিমত্তার মিশেল সারার মধ্যে রয়েছে বলে মন্তব্য করে প্রশংসায় ভরিয়ে দেন কারিনা।

পাশাপাশি আরও বলেন, তিনি সারা ও ইব্রাহিমের খুব ভালো বন্ধু। কারণ সারা ও ইব্রাহিমের কাছে ইতিমধ্যেই একজন সুন্দর মনের মা রয়েছেন। তাই নতুন করে আর কোনো মায়ের প্রয়োজন নেই বলেও মন্তব্য করেন কারিনা কাপুর খান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here