ডাকসুর আজীবন সদস্য শেখ হাসিনা

57

অনলাইন ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) আজীবন সদস্যপদ দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে ২০১৯-২০ বর্ষের জন্য ডাকসুর ১ কোটি ৮৯ লাখ টাকার বার্ষিক বাজেট পাস হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে ডাকসু ভবনে অনুষ্ঠিত চলতি ডাকসুর দ্বিতীয় কার্যনির্বাহী সভায় (বাজেট সভা) এসব সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। এদিকে ডাকসু নির্বাচনে কোনো অনিয়ম খুঁজে পায়নি তদন্ত কমিটি।

২৩ মার্চ ডাকসুর প্রথম কার্যনির্বাহী সভায় প্রধানমন্ত্রীকে আজীবন সদস্যপদ দেওয়ার বিষয়টি উত্থাপিত হলে সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের প্যানেল থেকে নির্বাচিত ডাকসুর ভিপি নুরুল হক ও সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হোসেন দ্বিমত জানান। গতকালের সভাতেও তারা বিষয়টিতে আগের মতোই আপত্তি তোলেন। তবে ছাত্রলীগের প্যানেল থেকে নির্বাচিত অন্য ২৩ প্রতিনিধির সম্মতিতে এবার তা গৃহীত হয়।

সভা শেষে ভিপি নুরুল হক সাংবাদিকদের বলেন, নির্বাচন নিয়ে যেহেতু বিতর্ক রয়েছে, তাই এই ডাকসু থেকে কাউকে আজীবন সদস্যপদ দেওয়ার বিষয়টি আমরা নৈতিকভাবে সমর্থন করি না। তবে ছাত্রলীগ চাইলে গায়ের জোরে সবই করতে পারে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ও ডাকসুর সভাপতি মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে বাজেট সভায় শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিমার আওতায় আনা এবং ক্যাম্পাসে গণপরিবহন নিয়ন্ত্রণ ও রিকশাভাড়া নির্ধারণের বিষয়ে কিছু নীতিগত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার জানান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনে অনিয়ম হয়েছে বলে নির্বাচনে অংশ নেওয়া কয়েকজন প্রার্থী ও প্যানেলগুলোর অভিযোগের সত্যতা খুঁজে পায়নি সংশ্লিষ্ট তদন্ত কমিটি। গত বুধবার রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম সিন্ডিকেটের এক সভায় তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন গ্রহণ করে ডাকসু নির্বাচনে অনিয়ম হয়নি বলে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। একইসঙ্গে ডাকসু নির্বাচনের বৈধতা দেয় সিন্ডিকেট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here