ট্রাম্পের মধ্যপ্রাচ্য শান্তি পরিকল্পনায় ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের প্রস্তাব

77

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মধ্যপ্রাচ্য শান্তি পরিকল্পনায় ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে । এমনটি জানিয়েছে ইসরায়েলি গণমাধ্যম রেশেত ১৩। খবর রয়টার্সের।

রেশেত ১৩’র বরাত দিয়ে রয়টার্স জানায়, প্রস্তাবিত ফিলিস্তিন রাষ্ট্রে দখলকৃত পশ্চিম তীরের ৯০ শতাংশ রাখা পরিকল্পনা করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তবে সেখানকার পবিত্র স্থানগুলোকে ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের বাইরে রাখা হয়েছে।

এদিকে হোয়াইট হাউস ইসরায়েলি গণমাধ্যমের এমন সংবাদ প্রত্যাখ্যান করেছেন। তারা বলছে মধ্যপ্রাচ্য শান্তি আলোচনার পরিকল্পনা এখনো গোপন রয়েছে এবং এটি আরো কয়েকমাস পর প্রকাশিত হবে।

মার্কিন সূত্রের বরাত দিয়ে রেশেত ১৩ টেলিভিশনের প্রতিবেদনে বলা হয়, মার্কিন মধ্যপ্রাচ্য শান্তি পরিকল্পনা পুরো পশ্চিম তীরে বসবাসরত ইহুদি জাতীকে বিপাকের মধ্যে ফেলবে । এ ছাড়া এ পরিকল্পনা অনুযায়ী পশ্চিম তীরে ইহুদিদের বিচ্ছিন্ন বসতি স্থাপনার কার্যক্রম বন্ধ অথবা সাময়িকভাবে স্থগিত করে দেয়া হতে হতে পারে।

ট্রাম্পের মধ্যপ্রাচ্য শান্তি পরিকল্পনা অনুযায়ী,  পশ্চিম তীরে অবস্থিত আল আকসা মসজিদ ইসরায়েলি সার্বভৌমত্বের অধীনে থাকবে তবে মুসলমান, খৃষ্টান, ইহুদীদের এই তিন ধর্মের এই তীর্থ স্থানটিতে ইসরায়েল, ফিলিস্তিনি এবং জর্ডানের যৌথ ব্যবস্থাপনা থাকবে।  এছাড়া পূর্ব জেরুজালেমের বেশিরভাগ অংশ ফিলিস্তিন সার্বভৌমত্বের অধীনে থাকবে এবং এটি হবে ফিলিস্তিনের রাজধানী।

ইসরায়েল পুরো জেরুজালেমকেই তাদের অভ্যন্তরীণ এবং অবিচ্ছেদ্য অংশ বলে দাবি করে। যদিও আন্তর্জাতিকভাবে এটি স্বীকৃত নয়। আর ফিলিস্তিনিরা পূর্ব জেরুজালেম এবং আল আকসা মসজিদকে নিজেদের অংশে রাখতে চায়।

তবে ইসরায়েলি টেলিভিশন রেশেত ১৩’র এমন প্রতিবেদন সম্পর্কে ইসরায়েল এবং ফিলিস্তিন কর্মকর্তাদের কাছ থেকে কোন প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

তবে ট্রাম্পের মধ্যপ্রাচ্য শান্তি দূত হিসেবে কাজ করা জেসন গ্রিনব্লাট এবং ট্রাম্পের জামাতা জারেদ কুশ্নার এই প্রতিবেদনকে প্রত্যাখ্যান করে একটি টুইট বার্তায় লিখেছেন যে এটা সঠিক প্রতিবেদন নয় তবে কোন অংশ সঠিক নয় সেটি উল্লেখ করেনি তারা।

মতামত জানান

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here