কাশ্মীরে জঙ্গি হামলায় শহিদ হাওড়ার জওয়ান

93

আন্তর্জাতিক সংবাদ ঃ উরির থেকেও ভয়ঙ্কর জঙ্গি হানা কাশ্মীরে। পুলওয়ামায় সিআরপিএফের কনভয়ে আত্মঘাতী হামলায় নিহত অন্তত ৪২ জওয়ান।  জম্মু থেকে শ্রীনগর যাওয়ার পথে অবন্তীপুরার লেটাপোরার কাছে একটি গাড়ি কনভয়ে ঢুকে বিস্ফোরণ ঘটায়। হামলার দায় স্বীকার করেছে জইশ-এ-মহম্মদ। জঙ্গিহানার ভয়াবহ ছবি দেখে শিউরে উঠছে গোটা দেশ।দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামায় আত্মঘাতী জঙ্গি হামলায়  জখম হয়েছেন আরও অনেকে। এ ঘটনার দায় স্বীকার করেছে জইশ-ই-মহম্মদ। জঙ্গি হামলায় দেশের জওয়ানদের মৃত্যুর ঘটনায় ক্ষোভে ফুঁসছে গোটা দেশ।

বদলা নেওয়ার দাবি উঠেছে সব মহলে। আজ জম্মু-কাশ্মীর যাচ্ছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং। ‘‘কড়া জবাব দেওয়া হবে’’ বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন রাজনাথ। জঙ্গি হামলার ঘটনায় পাকিস্তানকে দেওয়া ‘মোস্ট ফেভারড নেশন’ তকমা প্রত্যাহার করছে ভারত সরকার।। আজ সকালে ফোন করে আমাদের জানানো হয়।’আশঙ্কাই সত্যি হল। শুক্রবার সকালে ফোনে এল সেই ‘দুঃসংবাদ’। তারপর থেকেই কান্নার রোল হাওড়ার বাউড়িয়ার সাঁতরা পরিবারে। জম্মু-কাশ্মীরে আত্মঘাতী জঙ্গি হামলায় যে জওয়ানরা শহিদ হয়েছেন, তাঁদের মধ্যে রয়েছেন এ রাজ্যের বাবলু সাঁতরা। জঙ্গি হামলার খবর গতকাল টিভির পর্দায় পাওয়ার পরই আঁতকে উঠেছিল সাঁতরা পরিবার। টেলিভিশনের পর্দায় ঘটনার বীভৎসতা দেখে বাবলার পরিজনরা ধরেই নিয়েছিলেন, তিনি ‘‘আর নেই’’। তবুও অফিসিয়ালি কিছু না জানানোয় শেষ আশায় বুক বেঁধেছিল সাঁতরা পরিবার। কিন্তু এদিন সকালে সেই আশা শোকের আবহে মিলিয়ে গেল।

বাবলার ৬ বছরের মেয়ে ও স্ত্রী রয়েছে। স্বামীর মৃত্যুসংবাদ শুনে স্বভাবতই কান্নায় ভেঙে পড়েছেন স্ত্রী। বাবলুর মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ সাঁতরা পরিবার। নিহত জওয়ানের শ্যালিকা শম্পা কর ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলাকে বলেন, ‘‘গতকাল টিভি চ্যানেলে খবরে দেখেছি। জানতাম উনি আর নেই। তবুও যতক্ষণ না অফিসিয়ালি কিছু জানানো হয়, ততক্ষণ তো নিশ্চিত হওয়া যায় না। আজ সকালে ফোন করে আমাদের জানানো হয়।’’ জামাইবাবুর স্মৃতিচারণা করতে গিয়ে শম্পা আরও বললেন, ‘‘উনি সকলের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতেন। সকলকে ফোন করে খবর নিতেন।’’ আজ সন্ধেয় বাবলুর দেহ এ রাজ্যে আনা হচ্ছে বলে পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে।

মতামত জানান

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here