একুশে বইমেলা২০১৯নিয়ে বাংলাদেশ লেখক ঐক্যের প্রস্তাব

102

বিশেষ প্রতিবেদকঃ একুশে বইমেলা ২০১৯ উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বাংলা একাডেমির কাছে সুনির্দিষ্ট কিছু প্রস্তাব পেশ করেছে বাংলাদেশ লেখক ঐক্যন।

রাজধানীর হাতিরপুলের রোজভিউ প্লাজার ‘লেখক আড্ডা’য় আজ বৃহস্পতিবার  বইমেলার নতুন একটি খসড়া বিন্যাস ও নকশা প্রস্তাব আকারে উপস্থাপন করা হয়।

বাংলাদেশ লেখক আড্ডার সভাপতি ফাহমিদুল হক সংগঠনের পক্ষ থেকে প্রস্তাবগুলো পাঠ করেন।

বাংলাদেশ লেখক ঐক্য বিদ্যমান মেলা বিন্যাসের নানান সীমাবদ্ধতা খুঁজে পেয়েছে। বিদ্যমান মেলা বিন্যাসে বেশ কিছু অনাকাঙ্ক্ষিত বাঁক ও আড়াল রয়েছে, নকশার কারণে অনেক স্টল একেবারে আড়ালে পড়ে যায়, পাঠকরা সহজে কাঙ্ক্ষিত স্টল খুজে পান না, প্রচুর স্থান অপচয় হয়, দুর্ঘটনা ঘটলে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি প্রবেশের উপায় থাকে না।

ফলে স্টলবিন্যাসের নকশা পুনর্বিন্যাসের প্রয়োজন রয়েছে। ডিজাইনার মেহেদী হক প্রস্তাবিত নকশাটি সাংবাদিকদের কাছে ব্যাখ্যাসহ তুলে ধরেন।

একুশে বইমেলা ২০১৯ উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বাংলা একাডেমির কাছে সুনির্দিষ্ট কিছু প্রস্তাব পেশ করেছে বাংলাদেশ লেখক ঐক্য।

রাজধানীর হাতিরপুলের রোজভিউ প্লাজার ‘লেখক আড্ডা’য় আজ  বইমেলার নতুন একটি খসড়া বিন্যাস ও নকশা প্রস্তাব আকারে উপস্থাপন করা হয়। বাংলাদেশ লেখক আড্ডার সভাপতি ফাহমিদুল হক সংগঠনের পক্ষ থেকে প্রস্তাবগুলো পাঠ করেন।

বাংলাদেশ লেখক ঐক্য বিদ্যমান মেলা বিন্যাসের নানান সীমাবদ্ধতা খুঁজে পেয়েছে। বিদ্যমান মেলা বিন্যাসে বেশ কিছু অনাকাঙ্ক্ষিত বাঁক ও আড়াল রয়েছে, নকশার কারণে অনেক স্টল একেবারে আড়ালে পড়ে যায়, পাঠকরা সহজে কাঙ্ক্ষিত স্টল খুজে পান না, প্রচুর স্থান অপচয় হয়, দুর্ঘটনা ঘটলে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি প্রবেশের উপায় থাকে না।

ফলে স্টলবিন্যাসের নকশা পুনর্বিন্যাসের প্রয়োজন রয়েছে। ডিজাইনার মেহেদী হক প্রস্তাবিত নকশাটি সাংবাদিকদের কাছে ব্যাখ্যাসহ তুলে ধরেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here