সুন্দরগঞ্জ আসনের উপ-নির্বাচনে ত্রি-মূখী লড়াইয়ের সম্ভাবনা

আবু বক্কর সিদ্দিক, গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি:
গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের আসন্ন উপ-নির্বাচনের দিনক্ষণ যতই ঘুনিয়ে আসছে, বাড়ছে ততই ভোটারদের আনাগোনা। আর প্রার্থীরা নির্ঘুম হয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে স্ব-স্ব প্রতীকে ভোট প্রার্থনা করে যাচ্ছেন। সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা যায়, আগামী ২২ মার্চ এ আসনের উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। মর্মে নির্বাচন পূর্ব প্রস্তুতির অধিকাংশই সম্পন্ন হয়েছে। প্রশাসনের কয়েকটি স্তরের তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। আসন্ন এ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ ৭ জন প্রার্থী পারস্পরিক প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এরা হলেন- আ’লীগের গোলাম মোস্তফা আহম্মেদ (নৌকা), জাতীয় পার্টির ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পার্টোয়ারী (লাঙ্গল), জাতীয় পার্টি (জেপি)’র সাবেক এমপি ওয়াহেদুজ্জামান সরকার বাদশা (বাইসাইকেল), জাসদ’র এ্যাড.মোহাম্মদ আলী প্রামাণিক (মশাল), গণ-ফ্রন্ট’র শরিফুল ইসলাম (মাছ), এনপিপি’র জিয়া জামান খাঁন (আম) ও স্বতন্ত্র ইঞ্জিনিয়ার মোস্তফা মোহসিন সরদার (আপেল)। প্রার্থীরা সকলেই উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোটারদের মাঝে ভোট প্রার্থনা করছেন। নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘুনিয়ে আসার সাথে সাথেই বাড়ছে ভোটারদের ব্যাপক জল্পনা-কল্পনা। ভোটারদের মতে এ নির্বাচনে ত্রি-মুখী লড়াইয়ে সম্ভাবনা রয়েছে। আ’লীগ মনোনীত প্রার্থী (নৌকা) গোলাম মোস্তফা আহম্মেদ, জাপা মনোনীত প্রার্থী (নাঙ্গল) ব্যরিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী (আপেল) ইঞ্জিনিয়ার মোস্তফা মহসিন সরদারের মাঝে। তবে আসন্ন নির্বাচনে সকল প্রার্থীসহ সর্ব শ্রেণির ভোটারদের প্রত্যাশা সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও অবাধ নির্বাচনের। এব্যাপারে পৃথক পৃথকভাবে কথা হলে প্রার্থীগণ সকলেই জয়ের আশাবাদ ব্যক্ত করেন।