সিলেটের গোলাপগঞ্জে বজ্রপাত থেকে সৃষ্ট অগ্নিকাণ্ডে মা-ছেলেসহ পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে।

রোববার (১৮ মার্চ) ভোর রাতে উপজেলার লক্ষণাবন্দ ক্লাববাজার এলাকায় লয়লু মিয়ার কলোনিতে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- গোলাপগঞ্জ উপজেলার পনাইরচক গ্রামের মছকন্দর আলীর স্ত্রী সেবু বেগম (২২), সিলেটের দক্ষিণ সুরমা উপজেলার মোগলাবাজার খালেরমুখ গ্রামের ফজলু মিয়ার স্ত্রী তাসকিমা বেগম (৩০) তার শিশু সন্তান তাহমিদ (২), গোলাপগঞ্জের দক্ষিণ নোয়াই গ্রামের সেবুল (১৬), ও অজ্ঞাত এক কিশোর (১৬)।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে দমকল বাহিনী ও পুলিশ জানায়, ভোর রাতে বৃষ্টিপাতের সময় বজ্রপাত হলে কলোনি বাসার সামনের গ্যাস রাইজারে আগুন ধরে যায়। মুহূর্তের মধ্যেই কলোনিতে আগুন ছড়িয়ে পড়লে ঘুমন্ত অবস্থায় মা-ছেলেসহ পাঁচজনের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় আহত হন আরো দুইজন।

খবর পেয়ে দমকল বাহিনীর দু’টি ইউনিট সিলেট থেকে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এসময় আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

সিলেট দমকল বাহিনীর উপ সহকারী পরিচালক দিনেমনি শর্ম্মা বাংলানিউজকে বলেন, কলোনি বাসার তিন কক্ষ বিশিষ্ট সেমিপাকা ঘরের গ্যাস রাইজারের উপর বজ্রপাত হলে আগুন ধরে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই দগ্ধ হয়ে পাঁচজনের মৃত্যু হয়। নিহতদের মধ্যে দুই নারীই অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন।