print
এস এম আলতাফ হোসাইন সুমন লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধি :

লালমনিরহাটে অনার্স ২য় বর্ষের পরীক্ষায় স্মার্টওয়াচের মাধ্যমে পরীক্ষার হলে বসে প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় উত্তম চন্দ্র রায় নামে এক অনার্স পরীক্ষার্থীকে বহিস্কার ও এক মাসের সাজা দিয়ে কারাগারে পাঠিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত ।

বুধবার ( ৬ ডিসেম্বর) বিকালে এক মাসের বিনাশ্রম সাজা দিয়ে তাকে কারাগারে পাঠান ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক।

সাজাপ্রাপ্ত উত্তম চন্দ্র রায় লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার বুড়ির বাজার এলাকার দীপক কুমার রায়ের ছেলে। সে লালমনিরহাট সরকারি কলেজে ব্যবস্থাপনা বিষয়ে অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।

গতকাল বুধবার তার সাপ্লাই চেইন ব্যবস্থা বিষয়ের পরীক্ষা ছিল। লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মমতাজ বেগম ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

লালমনিরহাট মজিদা খাতুন সরকারী মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) নজরুল ইসলাম বলেন, গত মঙ্গলবার ১০ জন ভুয়া পরীক্ষার্থীকে আটক করে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে। তাদেরকে এক বছর করে সাজা দেয়া হয়। একই সঙ্গে আসল পরীক্ষার্থী ১০ জনকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এ ঘটনার পরও গতকাল বুধবার আধুনিক প্রযুক্তির স্মার্টওয়াচের মাধ্যমে প্রশ্নপত্র ফাঁসের চেষ্টাকালে উত্তম নামে এক পরীক্ষার্থীকে আটক করা হয়। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত তাকে এক মাসের বিনাশ্রম সাজা প্রদান করেন।

লালমনিরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহফুজ আলম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সাজাপ্রাপ্ত উত্তম চন্দ্র রায়কে লালমনিরহাট কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY