লাঠির বাড়ি দিয়ে কবিরাজি চিকিৎসা।

রবি ফকির, কবিরাজি চিকিৎসা দেন। তবে তার চিকিৎসায় নয়ন খান (১৩) নামের এক প্রতিবন্ধী শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। নয়নের পরিবারের অভিযোগ, কবিরাজ রবি ফকির চিকিৎসার নামে নয়নকে লাঠি দিয়ে মারধর করেছে। লাঠি দিয়ে বাড়ি দেয়াই নাকি এ রোগের চিকিৎসা। আর এ কারণেই নয়নের মৃত্যু হয়েছে।

নিহত নয়ন মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার গোপালপুর ইউনিয়নের পশ্চিম পূয়ালী গ্রামের সেলিম খানের ছেলে। মাদারীপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার সকালে নয়নের মৃত্যু হয়।

জানা যায়, শুক্রবার সকালে রাজৈর উপজেলার শ্যামপুর এলাকার কবিরাজ রবি ফকিরের বাড়িতে নয়নকে নিয়ে যায় তার পরিবার। এসময় নয়নকে কবিরাজ লাঠি দিয়ে বেদম মারধর করে। পরে সেখান থেকে পরিবারের লোকজন নয়নকে বাড়িতে নিয়ে আসে। মারধরের মাধ্যমেই এই চিকিৎসা দেয়া হয় বলে কবিরাজ তার পরিবারকে বলেন। রোববার সকালে নয়ন অচেতন হয়ে পড়লে তাকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সোমবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নয়নের মৃত্যু হয়।

স্বজনরা অভিযোগ করেন কবিরাজের ভুল চিকিৎসার কারণেই নয়নের মৃত্যু হয়েছে।

মাদারীপুর সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মো. আবু সফর জানান, ছেলেটির শরীরে মারাত্মক জ্বর ছিল, টিকা জনিত সমস্যাও ছিল। আমরা সাধ্যমত চেষ্টা করেছি চিকিৎসা দিতে। কিন্তু সোমবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।