রাশিয়ায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে পুতিন এগিয়ে

Smiley face

রাশিয়ার পূর্বপ্রান্তের দুটি ফেডারেল অঞ্চলে ভোটগ্রহণের মধ্য দিয়ে রবিবার সকালে আনুষ্ঠানিকভাবে দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচন শুরু হয়েছে। স্থানীয় সময় সকাল ৮টায় দূরপ্রাচ্যের কামচাটকা অঞ্চলের পাশাপাশি স্বায়ত্তশাসিত চুকোতকা অঞ্চলে ভোটগ্রহণ শুরু হয়।

এবারের নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে সাত প্রার্থী লড়াই করছেন। এসব প্রার্থী হলেন পাওয়েল গ্রোদিনিন, ভ্লাদিমির ঝিরিনোভোস্কি, সের্গেই ব্যাবুরিন, গ্রেগরি ইউলিনেস্কি, বরিস তিতোভ, ম্যাক্সিম সেরিকিন ও নারী প্রার্থী কিসনিয়া সাবচাক।-খবর পারস টুডের।

সর্বশেষ জনমত জরিপে দেখা গেছে, এ নির্বাচনে ভ্লাদিমির পুতিনের জয়ী হওয়ার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি। রাশিয়ার নির্বাচন পরিচালনাবিষয়ক কেন্দ্রীয় কমিটি শনিবার ঘোষণা করেছে, ৩০ হাজার পর্যবেক্ষক সারা দেশে অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচন পর্যবেক্ষণের দায়িত্ব পালন করবেন।

২০০০ সালে প্রথম প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব গ্রহণ করেছিলেন ভ্লাদিমির পুতিন। রাশিয়ার সংবিধান অনুযায়ী, একজন রাজনীতিবিদ ছয় বছরের জন্য দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। অবশ্য ২০০৮ সাল পর্যন্ত রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের এই মেয়াদ ছিল মাত্র চার বছর।

কিন্তু ওই বছর সাবেক প্রেসিডেন্ট দিমিত্রি মেদভেদেভের শাসনামলে প্রেসিডেন্টের মেয়াদকাল চার বছর থেকে বাড়িয়ে ছয় বছর করা হয়। এ ছাড়া একজন প্রেসিডেন্ট পর পর দুই দফার বেশি ক্ষমতায় থাকতে পারেন না। প্রেসিডেন্ট পুতিন ২০০০ সালে প্রথমবার রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। টানা দুবারে আট বছর এই দায়িত্ব পালনের পর সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা অনুযায়ী ২০০৮ সালের নির্বাচনে প্রার্থী হতে পারেননি তিনি।

ওই বছর দিমিত্রি মেদভেদেভ রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব গ্রহণ করেন এবং পুতিন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এর পর ২০১২ সালে অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে আবার পুতিন প্রার্থী হন এবং জয়লাভ করেন।

LEAVE A REPLY