রাশিয়ার হ্যাকিংয়ের জবাব দেবে যুক্তরাষ্ট্র: ওবামা

যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে প্রভাব ফেলতে সাইবার হামলার সঙ্গে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন সরাসরি জড়িত বলে হোয়াইট হাউস অভিযোগ তোলার পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেছেন, রাশিয়ার হ্যাকিংয়ের উপযুক্ত জবাব দেবে যুক্তরাষ্ট্র। তিনি গতকাল বৃহস্পতিবার এনপিআর রেডিও’কে বলেন, ‘আমি মনে করি, এ ব্যাপারে কোন সন্দেহ নেই যে কোন বিদেশি সরকার যদি আমাদের নির্বাচনে প্রভাব ফেলার চেষ্টা করে তাহলে এর বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের পদক্ষেপ নেওয়া প্রয়োজন।’

প্রসিডেন্ট বারাক ওবামার একজন ঘনিষ্ঠ উপদেষ্টা বেন রোডস বলেছেন, প্রেসিডেন্ট পুতিন যেভাবে নিজের দেশ ও প্রশাসন পরিচালনা করেন, তাতে তার অজ্ঞাতসারে রুশ হ্যাকাররা এত বড় হ্যাকিং এর ঘটনা ঘটাতে পারে না।

মার্কিন কর্মকর্তারা আরো বলেন, গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ’র প্রতিবেদনে দেখা গেছে, প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে প্রভাবিত করার উদ্দেশ্যে রুশ হ্যাকাররা ঐ সাইবার হামলা করেছিল। আর এর নির্দেশনা এসেছিল সর্বোচ্চ কোন পর্যায় থেকে।

কর্মকর্তারা আরো বলেছেন, রুশ সরকারের যেকোনো কর্মকাণ্ডের জন্য তো সরকার প্রধান হিসেবে শেষ পর্যন্ত প্রেসিডেন্টই দায়ী হবেন। তবে রাশিয়া শুরু থেকেই ঐ সাইবার হামলার বিষয়ে দেশটির কোন রকম সম্পৃক্ততার সম্ভাবনা নাকচ করে আসছে। নতুন করে হোয়াইট হাউজ এই বিতর্কে যোগ দেওয়ার পরে বৃহস্পতিবারও ক্রেমলিন থেকে বিষয়টিকে ভিত্তিহীন বলে নাকচ করে দেয়া হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপের বিষয়টি নাকচ করে দিয়েছেন। তিনি বলেছেন নির্বাচনে হিলারি ক্লিনটন জিতলে এ নিয়ে কোন তদন্তই চালাত না সরকার।