রাজশাহী প্রতিনিধি :
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) বিভিন্ন আয়োজন-অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে বিজয় দিবস উদযাপিত হয়েছে। শনিবার বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনসহ বিভিন্ন পেশাজীবী ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন নিজ নিজ কর্মসূচির মাধ্যমে দিনটি পালন করে।

বিজয় দিবসের প্রথম প্রহরে রাত ১২:০১ মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে উপাচার্য প্রফেসর এম আব্দুস সোবহান, উপ-উপাচার্য প্রফেসর আনন্দ কুমার সাহা, কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর এ কে এম মোস্তাফিজুর রহমান, রেজিস্ট্রার প্রফেসর এম এ বারী, প্রক্টর প্রফেসর লুৎফর রহমান, ছাত্র উপদেষ্টা প্রফেসর জান্নাতুল ফেরদৌসসহ ঊর্ধতন কর্মকর্তাগণ বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারে ও সকাল ৭টায় বদ্ধভূমি স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করেন।

সকাল ৮:৪৫ মিনিটে অনুষ্ঠিত হয় বিশ্ববিদ্যালয় স্কুলের কুচকাওয়াজ ও খেলাধুলা। কুচকাওয়াজে অভিবাদন গ্রহণ ও খেলাধুলার পুরস্কার প্রদান করেন উপাচার্য। সকাল ৯:৩০ মিনিটে শেখ রাসেল মডেল স্কুল প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয় আনন্দ মেলা। এর উদ্বোধন করেন উপাচার্য। এই আনন্দ মেলায় ছিল স্কুলের শিক্ষার্থীদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, খেলাধুলা ইত্যাদি।

সকাল ১০:১৫ মিনিটে সাবাস বাংলাদেশ’ চত্বরে অনুষ্ঠিত হয় বিএনসিসি, রোভার স্কাউট ও রেঞ্জার ইউনিটের কুচকাওয়াজ। এতে প্যারেড পরিদর্শন ও অভিবাদন গ্রহণ করেন উপাচার্য। সকাল ১০:৪৫ মিনিটে সিনেট ভবন চত্বরে অনুষ্ঠিত হয় চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা। এই প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন উপাচার্য। সেখানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিজয় দিবস উদ্যাপন কমিটির আহ্বায়ক উপ-উপাচার্য। অনুষ্ঠানসমূহে অন্যান্যের মধ্যে কোষাধ্যক্ষ, রেজিস্ট্রার, ছাত্র-উপদেষ্টা, প্রক্টর প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বেলা ১১টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয় স্টেডিয়ামে প্রীতি ক্রিকেট, ফুটবল ও হ্যান্ডবল খেলা এবং বাদ জোহর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে মিলাদ ও বিশেষ মোনাজাত এবং সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় মন্দিরে প্রার্থনা ও কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনে সাংস্কৃতিক পরিবেশনা অনুষ্ঠিত হয়।

এছাড়া, রাবি শিক্ষক সমিতি, অফিসার সমিতি, বিভিন্ন হল প্রশাসন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ স্মৃতি সংগ্রহশালা, বিভিন্ন বিভাগসহ বিভিন্ন পেশাজীবী ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠন, রাবি সাংবাদিক সমিতি, রাবি প্রেস ক্লাব, রাবি রিপোটার্স ইউনিটি শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণ ও নীরবতা পালন করে।

উল্লেখ্য, বিজয় দিবস উপলক্ষে রাবি শহীদ স্মৃতি সংগ্রহশালা সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ও বরেন্দ্র গবেষণা জাদুঘর সকাল ১১টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত দর্শকদের জন্য খোলা থাকবে।