print
রায়হান ইসলাম,রাজশাহী : রাজশাহীর দুর্গাপুরে ওষুধ না পেয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে কমিউনিটি ক্লিনিকে হামলা ও ভাঙচুর চালিয়েছে দুবর্ত্তরা। এ সময় তাদের বাধা দিতে গেলে কমিউনিটি ক্লিনিকের দায়িত্বে থাকা কমিউনিটি হেল্থ কপয়ার প্রোভাইডার আলফা খাতুন ও তার স্বামী ফারুক হাসানের ওপর হামলা চালায় এবং মারধোর করে দূর্বত্তরা। এ সময় কমিউনিটি ক্লিনিকের ওষুধ ভাঙচুর ও রেজিস্টারপত্র ছিড়ে ফেলে দুবর্ত্তরা। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এঘটনা ঘটে। পরে আহত কমিউনিটি হেল্থ কেয়ার প্রোফাভাইডার আলফা খাতুনকে দুর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। খবর পেয়ে দূর্গাপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেছে।
পুলিশ ও প্রতাক্ষ্যদর্শীদের সুত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার শ্যামপুর বউ বাজার সংলগ্ন কমিউনিটি ক্লিনিকে ওষুধ নিতে যান শ্যামপুর গ্রামের মশিউর ও মাহফুজ এবং দপবীপুর গ্রামের মোস্তাকিন। তাদের চাহিদা অনুযায়ী ঔষুধ দিত না পারায় তারা কমিউনিটি ক্লিনিকের ঔষুধপত্র ভাঙচুর ও ঔষুধ বিতরনের রেজিস্টারপত্র ছিড়ে ফেলে। এ সময় কমিউনিটি ক্লিনিকের দায়িত্বে থাকা কমিউনিটি হেল্থ কেয়ার প্রোভাইডার আলফা খাতুন তাদের বাধা দিলে তাকেও শারীরিক লাঞ্চিত করা হয়। খবর পেয়ে আলফা খাতুনরে স্বামী ফারুক হাসান ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে তাকেও তারা মারধোর করে ।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. দেওয়ান নাজমুল আলম জানান, খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক ভাবে থানা পুলিশকে জানানো হলে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ ব্যাপার আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও তিনি জানান ।
থানার এসআই কামরুজ্জামান জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পৌঁছার আগেই কমিউনিটি ক্লিনিকে হামলাকারী ওই তিন যুবক পালিয়ে যায়। পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ভাঙচুরকৃত ওষুধপত্র ও ছিড়ে ফেলা ঔষুধ বিতরনের রেজিস্টারপত্র আলামত হিসেবে জব্দ করে থানায় আনা হয়েছে। এ ব্যাপারে লিখিত অভিযাগ পাওয়া গেলে হামলা কারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

LEAVE A REPLY