ভারতের আসামের গুয়াহাটিতে পাঁচ বছরের এক শিশুকে গণধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ অভিযোগে স্থানীয় নয়াগাঁও থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।
ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রের খবর, পাঁচ বছরের ওই কন্যা শিশুকে গত শুক্রবার তিন ছেলে মিলে গণধর্ষণ করে। এরপর শিশুটির গায়ে কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে মারারও চেষ্টা করা হয়। তখন শিশুটির শরীরের ৯০ শতাংশ অগ্নিদগ্ধ হয়।পরে শুক্রবার রাতেই তাকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানেই শিশুটির মৃত্যু হয়।

এদিকে শারীরিক পরীক্ষার পর চিকিৎসকরা জানান শিশুটিকে গণধর্ষণ করা হয়েছে। স্থানীয় পুলিশ সুপার শংকর রাইমেধি জানান, বাচ্চাটির শরীরে পাওয়া আঘাতের চিহ্ন থেকে এটা স্পষ্ট যে তাকে ধর্ষণ করা হয়েছে।

পরিবারের দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে দুজনকে আটক করেছে পুলিশ। বাকি আরেকজন পলাতক। তার খোঁজে তল্লাশি চলছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে জুভেনাইল জাস্টিস অ্যাক্টের আওতায় মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। তাদের আদালতে পেশ করা হবে। মৃত্যুর আগে শিশুকন্যার জবানবন্দীও কোনওরকমে নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ সুপার।