বৈশ্বিক উষ্ণতা ঠেকানোর পথ পাওয়া গেছে!

কার্বন-ডাই-অক্সাইড গ্যাসকে ইথানলে রূপান্তর করার একটি সহজ প্রক্রিয়া ঘটনাক্রমে বের করেছেন বিজ্ঞানীরা। শিল্প পর্যায়ে এ প্রক্রিয়া সফলভাবে প্রয়োগ করা সম্ভব হলে বৈশ্বিক উষ্ণতা ঠেকানোর ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য সফলতা পাওয়া যাবে; পাশাপাশি জ্বালানি নিয়ে উদ্বেগও কমবে। গত বছর তেল এবং কয়লার মতো জীবাশ্ম জ্বালানি পুড়িয়ে বিশ্বে ৩৮.২ বিলিয়ন টন কার্বন-ডাই- অক্সাইড উৎপন্ন করা হয়েছে। গ্রিন হাউজ গ্যাস নামে পরিচিত এই কার্বন-ডাই-অক্সাইড শেষ পর্যন্ত বাতাসে গিয়ে মিশেছে।

মার্কিন ডিপার্টমেন্ট অব এনার্জির ওক রিজ ন্যাশনাল ল্যাবরেটরির বিজ্ঞানীরা কার্বন-ডাই-অক্সাইড থেকে ইথানল তৈরির একটি বিদ্যুৎ-রাসায়নিক প্রক্রিয়া বের করেছেন। এ প্রক্রিয়ায় কার্বন-ডাই-অক্সাইড থেকে ইথানল তৈরির জন্য  কার্বন এবং তামার খুদে পেরেক ব্যবহার করা হয়েছে। এ প্রক্রিয়ার অনুঘটক হিসেবে ব্যবহার করতে হয়েছে কার্বন, তামা এবং নাইট্রোজেন তৈরি উপাদান। বিদ্যুৎ পরিচালিত করে এ থেকে জটিল রাসায়নিক প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে পাওয়া গেছে ইথানল।

এভাবে যে ইথানল উৎপন্ন হয় তা সরাসরি গাড়ির জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করা সম্ভব বলে জানিয়েছেন গবেষণা দলের নেতা ড. অ্যাডাম রোনডিনোন। শিল্প পর্যায়ে এভাবে ইথানল পাওয়া যায় কিনা এবারে সে পরীক্ষায় নামার প্রস্তুতি নিচ্ছে গবেষণা দলটি।