বিশ্ববাজারে পণ্য রপ্তানিতে সক্ষমতা অর্জন করেছে : বাণিজ্যমন্ত্রী

    বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, বাংলাদেশের তৈরি পণ্যের রপ্তানি দিন দিন বাড়ছে। বাংলাদেশ বিশ্ববাজারে পণ্য রপ্তানিতে সক্ষমতা অর্জন করেছে। পৃথিবীর অনেক উন্নত দেশে বাংলাদেশের তৈরি পণ্যের বেশ চাহিদা রয়েছে।
    শনিবার রাতে ইন্ডিয়ান চেম্বার অব কমার্স এবং ভারতের বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রণালয় আয়োজিত অন্ধ্রপ্রদেশের বিশাখাপাটনামে অনুষ্ঠিত পার্টনারশিপ সামিটের দ্বিতীয় দিনে ‘ইন্ডিয়ান’স ইন্টারগ্রেশন উইথ সাউথ এন্ড সাউইস্ট এশিয়া’ শীর্ষক ৮ নং প্লেনারি সেশনে বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।
    ভারত বাংলাদেশের ঘনিষ্ঠ বন্ধুরাষ্ট্র উল্লেখ করে তোফায়েল আহমেদ বলেন, ভারত অনেক বড় রাষ্ট্র, বাজারও অনেক বড়। ভারত বাংলাদেশকে তামাক ও মদ ছাড়া সকল পণ্য ডিউটি ও কোটা ফ্রি রপ্তানির সুবিধা প্রদান করেছে। কিন্তু শুল্ক সংক্রান্ত জটিলতার কারণে বাংলাদেশ আশানুরুপ রপ্তানি করতে পারছে না।
    তিনি বলেন, প্রতিবেশি বড় রাষ্ট্র হিসেবে ভারতের প্রতি বাংলাদেশের প্রত্যাশা অনেক। পারস্পরিক সহযোগিতা বৃদ্ধির মাধ্যমে উভয় দেশের মধ্যে বাণিজ্য বৃদ্ধি করা সম্ভব। উভয় দেশ আলোচনায় বসলে চলমান সমস্যাগুলো নিরসন করা সম্ভব। বাংলাদেশ আশা করছে আলোচনার মাধ্যমে বাণিজ্য জটিলতাগুলো দূর করা সম্ভব হবে। এজন্য ভারতকে এগিয়ে আসতে হবে।
    কসফেডারেশন অফ ইন্ডিয়ান ইন্ডাস্ট্রির সেক্রেটারি জেনারেল চন্দ্রজীত ব্যানার্জীর সভাপতিত্বে প্লেনারি সেশনে ভারতের বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রী নির্মলা সিতারামান, নেপালের বাণিজ্যমন্ত্রী রোমি গোচান ঠাকালী বক্তব্য রাখেন।