বিপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচে রাজশাহী-কুমিল্লা

0
219
Smiley face

সফররত ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ শেষেই শুরু হবে বাংলাদেশের ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি প্রতিযোগিতা ‌’বিপিএল’। আগামী ৪ নভেম্বর থেকে শুরু হবে বিপিএলের চতুর্থ আসর। আজ রোববার এবারের আসরের সূচিও প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

বিপিএলের এবারের মৌসুমের উদ্বোধনী ম্যাচে মুখোমুখি হবে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস ও রাজশাহী কিংস। একই দিনে অন্য ম্যাচে লড়বে রংপুর রাইডার্স ও খুলনা টাইটানস। বিপিএলে প্রতিদিন অনুষ্ঠিত হবে দুটি করে ম্যাচ। প্রথম ম্যাচটি শুরু হবে বেলা ২টায়। আর দ্বিতীয় ম্যাচটি শুরু হবে সন্ধ্যা ৭টায়।  অবশ্য শুক্রবারে খেলা শুরু হবে কিছুটা দেরিতে। প্রথম ম্যাচটি শুরু বেলা আড়াইটায়। দ্বিতীয় ম্যাচটি সন্ধ্যা সোয়া ৭টায়।

৪ নভেম্বর শুরু হয়ে ঢাকায় প্রথম পর্ব শেষ হবে ১৩ নভেম্বর। এরপর ১৭ নভেম্বর থেকে চট্টগ্রাম পর্ব, চলবে ২২ নভেম্বর পর্যন্ত। ঢাকায় দ্বিতীয় পর্ব শুরু ২৫ নভেম্বর। ৬ ডিসেম্বর এলিমিনেটর ও প্রথম কোয়ালিফায়ারের ম্যাচ। ৭ ডিসেম্বর হবে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার। আর  ৯ ডিসেম্বর হবে ফাইনাল।

ঢাকায় সব ম্যাচই হবে মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে। আর চট্টগ্রামের ভেন্যু হতে পারে জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম অথবা এম এ আজিজ স্টেডিয়াম।

বিপিএল চতুর্থ আসরের সূচি :
৪ নভেম্বর : কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস ও রাজশাহী কিংস এবং রংপুর রাইডার্স ও খুলনা টাইটানস

৫ নভেম্বর : চিটাগং ভাইকিংস ও বরিশাল বুলস এবং  কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস ও ঢাকা ডাইনামাইটস

৬ নভেম্বর : রংপুর রাইডার্স ও রাজশাহী কিংস এবং বরিশাল বুলস ও খুলনা টাইটানস

৮ নভেম্বর : ঢাকা ডাইনামাইটস ও বরিশাল বুলস এবং চিটাগং ভাইকিংস ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস

৯ নভেম্বর : খুলনা টাইটানস ও রাজশাহী কিংস এবং রংপুর রাইডার্স ও চিটাগং ভাইকিংস

১১ নভেম্বর : কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস ও বরিশাল বুলস এবং ঢাকা ডাইনামাইটস ও রাজশাহী কিংস

১২ নভেম্বর : খুলনা টাইটানস ও চিটাগং ভাইকিংস এবং  রংপুর রাইডার্স ও ঢাকা ডাইনামাইটস

১৩ নভেম্বর : বরিশাল বুলস ও রাজশাহী কিংস এবং কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস ও খুলনা টাইটানস

বিপিএল-এর চট্টগ্রাম পর্ব ১৭ নভেম্বর থেকে শুরু হবে
১৭ নভেম্বর : চিটাগং ভাইকিংস ও ঢাকা ডাইনামাইটস এবং বরিশাল বুলস ও রংপুর রাইডার্স

১৮ নভেম্বর : চিটাগং ভাইকিংস ও রাজশাহী কিংস এবং কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস ও রংপুর রাইডার্স

১৯ নভেম্বর : ঢাকা ডাইনামাইটস ও খুলনা টাইটানস এবং চিটাগং ভাইকিংস ও বরিশাল বুলস

২১ নভেম্বর : ঢাকা ডাইনামাইটস ও রাজশাহী কিংস এবং কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস ও চিটাগং ভাইকিংস

২২ নভেম্বর : খুলনা টাইটানস ও রংপুর রাইডার্স এবং বরিশাল বুলস ও চিটাগং ভাইকিংস

ঢাকায় দ্বিতীয় পর্ব-
২৫ নভেম্বর : রংপুর রাইডার্স ও রাজশাহী কিংস এবং বরিশাল বুলস ও খুলনা টাইটানস

২৬ নভেম্বর : কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস ও ঢাকা ডাইনামাইটস এবং খুলনা টাইটানস ও রাজশাহী কিংস

২৭ নভেম্বর : বরিশাল বুলস ও ঢাকা ডাইনামাইটস এবং রংপুর রাইডার্স ও চিটাগং ভাইকিংস

২৯ নভেম্বর : কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস ও বরিশাল বুলস এবং  খুলনা টাইটানস ও চিটাগং ভাইকিংস

৩০ নভেম্বর : রংপুর রাইডার্স ও ঢাকা ডাইনামাইটস এবং বরিশাল বুলস ও রাজশাহী কিংস

২ ডিসেম্বর : রংপুর রাইডার্স ও বরিশাল বুলস এবং ঢাকা ডাইনামাইটস ও চিটাগং ভাইকিংস

৩ ডিসেম্বর : কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস ও খুলনা টাইটানস এবং রাজশাহী কিংস ও চিটাগং ভাইকিংস

৪ ডিসেম্বর : কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস ও রংপুর রাইডার্স এবং ঢাকা ডাইনামাইটস ও খুলনা টাইটানস

৬ ডিসেম্বর : এলিমিনেটর (তৃতীয় এবং চতুর্থ  দল)  এবং  প্রথম কোয়ালিফায়ার (প্রথম এবং দ্বিতীয় দল)

৭ ডিসেম্বর : দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার (এলিমিনেটর জয়ী এবং  প্রথম কোয়ালিফায়ার পরাজিত দল)

ফাইনাল (৯ ডিসেম্বর)
১০ ডিসেম্বর- ফাইনালের রিজার্ভ ডে

LEAVE A REPLY