অনলাইন ডেস্ক
এর আগেও ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দমদমে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে আত্মহত্যা করে এক তরুণ। এর রেশ কাটতে না কাটতেই রাজ্যের দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার সোনারপুরে ফেসবুক লাইভে এক তরুণীর আত্মহত্যার ঘটনা ঘটল।
পুলিশ জানায়, সোনারপুরের বৈদ্যপাড়ার বাসিন্দা মৌসুমী মিস্ত্রি দ্বাদশ শ্রেনিতে পড়েন। আরিয়ান নামে প্রতিবেশি এক তরুণের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। রোববার সকালে তারা এক সঙ্গে একটি অনুষ্ঠানে যান। সন্ধ্যায় বাসায় ফেরেন মৌসুমী। রাতে ফেসবুক লাইভে প্রেমিকের সঙ্গে কথা বলতে বলতেই সিলিং ফ্যানে ঝুলে আত্মহত্যা করেন তিনি।
পরিবারের লোকজন জানান, পাড়ার একটি অনুষ্ঠান থেকে ফিরে রাতের খাওয়া দাওয়া করে প্রতিদিনের মতো ঘরের দরজা বন্ধ করে দেন মৌসুমী। কিন্তু পরদিন অনেক বেলা পর্যন্ত ঘুম থেকে না ওঠায় তাকে ডাকাডাকি শুরু করেন বাড়ির লোকজন।
এবেলা জানায়, পরে জানালা দিয়ে মৌসুমীকে ফ্যানে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান বাড়ির লোকজন৷ খবর দেওয়া হয় থানায়। পুলিশ এসে মৃত্যুদেহ উদ্ধার করে। তখনও মৌসুমীর মোবাইল ফোনটি লাইভ মোডে ছিল।
পুলিশ ওই ভিডিওতে মৌসুমীকে আত্মহত্যা করতে দেখতে পায়। ঘটনার আগে প্রেমিক আরিয়ানের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ তার কথা হয় বলে জানা গেছে৷
এ ঘটনায় আরিয়ানের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে মৌসুমীর পরিবার।