ফুটবল তুলতে সেপটিক ট্যাংকে নেমে নিহত ৩

শুক্রবার বিকালে নগরীর খুলশী থানার ঝাউতলা ডিজেল কলোনি মসজিদ মাঠে এ ঘটনা ঘটে বলে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আলাউদ্দিন তালুকদার জানিয়েছেন।

নিহতরা হলেন- স্থানীয় মিজানের ছেলে সিফাত (১২) এবং আফজালের দুই ছেলে ইমরান হোসেন (২৫) ও রুবেল হোসেন (১৮)।

এএসআই আলাউদ্দিন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ডিজেল কলোনি মসজিদ মাঠে বিকেলে শিশু-কিশোররা ফুটবল খেলছিল। খেলতে খেলতে বলটি ওই মাঠের মধ্যে থাকা বেশ পুরনো একটি সেফটিক ট্যাংকে পড়ে যায়।

“সিফাত সেটি তুলতে গিয়ে ট্যাংকে পড়ে যায়। তখন সিফাতকে তুলতে ইমরান এগিয়ে যায়। কিন্তু ইমরানও উঠে আসতে না পারায় ভাইকে উদ্ধার করতে রুবেল ট্যাংকে নামে।”

পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে আনার পর চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন বলে এই পুলিশ সদস্য জানান।

ঘটনার বণর্ণা দিয়ে ফায়ার সার্ভিসের আগ্রাবাদ স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার রেজাউল কবির বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, সেপটিক ট্যাংকটি ছিল ৮-১০ ফুট গভীর।

“দীঘর্দিন পতিত থাকায় সেটিতে মিথেন গ্যাস জমেছিল। শুরুতে সিফাত ফুটবল তুলতে সেপটিক ট্যাংকে নামলে সে অজ্ঞান হয়ে যায়। এরপর অন্য দুজনও সেখানে নামলে তারাও গ্যাসের প্রভাবে অজ্ঞান হয়ে যায়।”

এএসআই আলাউদ্দিন তালুকদার জানান, চিকিৎসক ডেথ সার্টিফিকেটে লিখেছেন- ওই তিনজনকে মৃত অবস্থায় (ব্রট ডেড) হাসপাতালে আনা হয়েছে।

“সেপটিক ট্যাংকে থাকা গ্যাসের কারণে তাদের মৃত্যু হয়েছে।”