ফারুকও পরীক্ষা দেবেন কারাগার থেকে

সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে কোটা সংস্কার আন্দোলন করতে গিয়ে গ্রেপ্তার সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক হোসেনও পরীক্ষা দেবেন কারাগারে থেকে। আজ সোমবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. গোলাম নবী এ নির্দেশ দেন।

ফারুক হোসেনের আইনজীবী জায়েদুর রহমান জাহিদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে শুনানি শেষে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) উপাচার্যের বাসায় হামলা, ভাঙচুর করার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় ফারুক হোসেন কেন্দ্রীয় কারাগারে রয়েছেন।

গত ৪ জুলাই ফারুককে গ্রেপ্তার করা হয়। কয়েক দফা জামিনের আবেদন করার পর তা নাকচ হওয়ায় তার পরীক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা করার নির্দেশ চেয়ে আবেদন করা হয়।

ফারুক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার্স অব ডিজেস্টার ম্যানেজমেন্টের শিক্ষার্থী। আগামী ২৬ জুলাই থেকে ১১ আগস্ট পর্যন্ত প্রথম পর্বের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে বলে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সময়সূচি দিয়েছে।

এর আগে একই মামলায় গ্রেপ্তার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ছাত্র এ পি এম সুহেল কারাগারে থেকেই পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন বলে নির্দেশনা দেন একই আদালত। গত ১৯ জুলাই এই নির্দেশ দেওয়া হয়।

বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের জবি শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক সুহেলকে গত ১১ জুলাই আটক করে পুলিশ।। আদালতের নির্দেশে বলা হয়, কারাবিধি অনুযায়ী তাঁকে পরীক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে।

জানা গেছে, ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের ইংরেজি বিভাগের স্নাতক (সম্মান) তৃতীয় বর্ষের দ্বিতীয় সেমিস্টার পরীক্ষার সময়সূচির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে জবি কর্তৃপক্ষ। সে অনুযায়ী ১৫ জুলাই থেকে পরীক্ষা চলবে ৩১ জুলাই পর্যন্ত। এর মধ্যে সুহেলের পরীক্ষা রয়েছে।

চাকরির ক্ষেত্রে কোটা সংস্কার আন্দোলন চলাকালে দায়িত্বরত পুলিশকে মারধর, কর্তব্যকাজে বাধা, পুলিশের ওয়াকিটকি ছিনতাই ও উপাচার্যের (ভিসি) বাড়ি ভাঙচুরে জড়িত অভিযোগে শাহবাগ থানায় গত ১০ এপ্রিল চারটি মামলা করা হয়। এর মধ্যে পুলিশ বাদী হয়ে করে তিন মামলা।

আর উপাচার্যের বাসভবনে ভাঙচুরের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের জ্যেষ্ঠ নিরাপত্তা কর্মকর্তা এস এম কামরুল আহসান বাদী হয়ে আরো একটি মামলা করেন। কোনো মামলায়ই আসামিদের নাম উল্লেখ করা হয়নি। এর মধ্যে ভিসির বাসায় হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় অন্যদের সঙ্গে সুহেলকেও গ্রেপ্তার দেখানো হয়।