ফরিদপুরে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের বিরোধ ও গ্রাম্য আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংর্ঘষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় মান্নান নামে একজন নিহত হয়েছেন। এছাড়া সংঘর্ষে উভয় পক্ষের কমপক্ষে ৩০ জন আহত হয়েছেন। সোমবার সকালে সদরপুর উপজেলার কৃষ্ণপুর বাজারের ইজারাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।নিহত মান্নান সদরপুর উপজেলার রাধানগর গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে।
ফরিদপুরের সদরপুর উপজেলার কৃষ্ণপুর ইউনিয়ন বর্তমান চেয়ারম্যান বেল্লাল ফকির ও সাবেক চেয়ারম্যানের ছেলে তিতাস মণ্ডলের সঙ্গে দীর্ঘদিন যাবত আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দ্বন্দ্ব চলছিল। মাঝে মাঝেই তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষই সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। গত এক মাসেই এই দুই পক্ষ ৫/৬ বার দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়েছে।

এরই জের ধরে কৃষ্ণপুর বাজারের ইজারাকে কেন্দ্র করে গতকাল বিকেলেও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরে সোমবার সকাল থেকে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ফের সংঘর্ষে লিপ্ত হয় দুই পক্ষ। ভাংচুর করা হয় অর্ধশত দোকান পাট।
খবর পেয়ে সদরপুর, ভাঙ্গা, নগরকান্দা থানা পুলিশ ও জেলার অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে টিয়ার শেল ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সদরপুর থানার ওসি মোহাম্মদ আলী জানান, খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে। নিহত মান্নানের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।