গাজীপুরের টঙ্গী থেকে পৃথক দু’টি ঘটনায় সুফিয়া (১৯) ও রুবেল (৩১) নামে নারী-পুরুষের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

রোববার (১৯ নভেম্বর) ভোরে ও শনিবার (১৮ নভেম্বর) দিনগত রাতে টঙ্গীর পূর্ব আরিচপুর এলাকা থেকে মরদেহ দু’টি উদ্ধার করা হয়।

নিহত সুফিয়া লক্ষ্মীপুরের রামগতি থানার চরগজারিয়া এলাকার মো. সোহেলের স্ত্রী এবং রুবেল মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া থানার শিমুলিয়া এলাকার মৃত সুলতান সিকদারের ছেলে।

টঙ্গী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাহবুব হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, টঙ্গীর পূর্ব আরিচপুর এলাকায় স্বামীর সঙ্গে ভাড়া বাসায় থাকতো সুফিয়া। প্রতিদিনের মতো রাতে তারা স্বামী-স্ত্রী ঘুমিয়ে পড়েন। রাতে তার স্বামী বাহিরে গেলে ভেতর থেকে দরজা বন্ধ করে সুফিয়ার ঘরে আড়ার সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন।

পরে বাড়ির লোকজন তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে পুলিশে খবর দিলে রাত ১টার দিকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এদিকে, একই এলাকায় বাসা ভাড়া থাকতো রুবেল। ভোরে ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি। খবর পেয়ে ভোরে মরদেহ উদ্ধার করা হয়। মরদেহ দু’টি গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে তাদের আত্মহত্যার কারণ জানা যায়নি। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। এ ব্যাপারে তদন্ত চলছে বলেও জানান এসআই মাহবুব হাসান।