নতুন গল্পের কাজ করছি

কোনো নাটকে মোশাররফ করিমের উপস্থিতি মানেই সেটা দর্শকের জন্য আগ্রহের বিষয়। তবে মানের দিকে বাড়তি নজর দিচ্ছেন বলে আগের চেয়ে কাজ কমিয়ে দিয়েছেন এই অভিনেতা। তিনি মনে করেন, সংখ্যা নয় মানটাই তার কাছে মুখ্য। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন রকিব হোসেন
নিয়মিত কাজের বাইরে এখন ঈদের নাটকেরও শুটিং করছেন আপনি। কেমন লাগছে?

ভালোই লাগছে। নতুন নতুন গল্পের কাজ করছি। বেশকিছু নির্মাতা ঈদের অনেক আগে থেকেই নাটক ও টেলিছবি নির্মাণ শুরু করে দিয়েছেন। ঈদের কাছাকাছি সময়ে অভিনেতা-অভিনেত্রীদের সিডিউল সমস্যা এড়ানোর জন্যই অনেক আগেই কাজের প্রস্তুতি নেন তারা। আমার কাজ যেহেতু অভিনয়, তাই নির্মাতাদের বেঁধে দেওয়া সময় ধরেই শুটিং করতে হয়।

এরইমধ্যে ঈদের কী কী কাজ করলেন?

এই মুহুর্তে সবগুলোর নাম মনে পড়ছে না। তবে মনে থাকা কাজগুলো হচ্ছে-সাগর জাহানের ঈদ ধারাবাহিক নাটক ‘মাহিনের লাল ডায়েরি’, কক্সবাজারে এর শুটিং হয়েছে। এতে আমার বিপরীতে অভিনয় করেছেন নুসরাত ইমরোজ তিশা। একই নির্মাতার ‘মাছের দেশের মানুষ’ নামে আরও একটি খন্ড নাটকে অভিনয় করেছি। এছাড়াও আলম আশরাফের একটি নাটকের শুটিং শেষ করেছি সম্প্রতি।

ঈদের সময় প্রায় প্রতিটি চ্যানেলেই আপনাকে দেখা যায়। এটাকে কীভাবে দেখেন?

গত কয়েক বছর ধরে ঈদের সর্বাধিক নাটকের অভিনেতা আমি। এই যে সর্বাধিক নাটকের অভিনেতা হওয়ায় বিষয়টি–এতে বিন্দুমাত্র আমি উচ্ছ্বসিত নই। কারণ সংখ্যা নয়, মানটাই আমার কাছে মুখ্য।

বেশি কাজ করলে কী মান ধরে রাখা যায়?

আমার অভিনীত ঈদের কাজগুলোর শুটিং অনেক আগে থেকেই শুরু হয়। এছাড়া নাটক কিংবা টেলিছবিতে কাজ করার আগে আমি স্ক্রিপ্ট নিয়ে অনেক ভাবি। গল্প ও আমার চরিত্র ভালো না লাগলে কিংবা ভিন্ন ধরনের না হলে কাজের অফার আমি গ্রহণ করি না। সব সময়ই চ্যালেঞ্জিং চরিত্র খুঁজি। আমি কিন্তু আগের চেয়ে কাজ কমিয়ে দিয়েছি। এর ফলে প্রতিটি কাজের জন্য আলাদা করে ভাবতে পারি। আমি মনে করি, একটু সময় নিয়ে কাজ করলেই ভিন্নতা আনা যায়।

বাংলাভিশনে প্রচার হচ্ছে আপনার অভিনীত মহাগুরু শিরোনামের একটি ধারাবাহিক। এজন্য দর্শকদের প্রতিক্রিয়া কেমন পাচ্ছেন?

মহাগুরু নাটকের গল্পটা ভালো। এজন্য নাকি দর্শক এটা দেখছেন। সত্যি বলতে কী, অভিনয় নিয়ে আমাকে প্রচন্ড ব্যস্ত থাকতে হয়। ফলে কোন নাটক দর্শক দেখছেন, কোনটা দেখছেন না, তা জানার সুযোগ খুব একটা হয় না আমার। যারা মহাগুরু নাটকের সঙ্গে যুক্ত, তাদের দু-একজনের কাছে শুনেছি, গল্পটা মজার বলে অনেকেই এ নাটকটি দেখেন। নাটকের নাম ভূমিকায় অভিনয় করে আমারও ভালো লেগেছে।