ধারাবাহিক নাটক ‘ভালবাসার রং’

Smiley face

তিতি নামটা শুনলেই মনে হয় কোনো বাচ্চা মেয়েকে বুঝি ডাকা হচ্ছে। কিন্তু চৌধুরী বাড়ির তিতির ক্ষেত্রে বয়সের ব্যাপারটা কিন্তু আদতে তা নয়। সে এখন কলেজে পড়ে। আর বাড়ির কেউ তাকে তিতি বলে ডাকলে খানিকটা অভিমানের সুরে বলে ‘আমি তো বড় হয়ে গেছি, আমাকে আর এই নামে ডাকবে না আসল নামে ডাকবে। কিন্তু কে শোনে কার কথা, দাদা-দাদু, মামা-মামী সবাই তাকে তিতলি না বলে তিতি বলেই ডাকে। তিতি ছোটবেলায় বুঝতো যে, তার বাবা মা কোথাও বেড়াতে গেছে কিছুদিন পরেই ফিরে আসবে। কিন্তু এখন সে বড় হয়েছে, তাই বুঝতে পারে যে তার বাবা মা আর কখনোই ফিরে আসবে না। তিতি বড় হয়েছে। তার এখন কলেজে বন্ধুও হয়েছে। কিন্তু তিতি যাকে বন্ধুভাবে সেই নিলয় কিন্তু তিতিকে শুধু বন্ধুত্বের চেয়ে একটু বেশিই ভাবে। এমনই কাহিনী নিয়ে এটিএন বাংলায় প্রচার হয় ধারাবাহিক ‘ভালবাসার রং’। অরিন্দম গুহর রচনায় ধারাবাহিকটি পরিচালনা করেছেন আশিষ রায়। এতে অভিনয় করেছেন মাহমুদ সাজ্জাদ, ডলি ইসলাম, বাবুল আহমেদ, চন্দা মাহজাবিন, শিরিন আলম, নাবিলা, সানজিদা ও ইলিয়াস কাঞ্চন প্রমুখ।

LEAVE A REPLY