দৌলতপুর সিমান্তে পৃথক দু’টি ঘটনায় দুই গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ

0
187
Smiley face

দৌলতপুর প্রতিনিধি ঃ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সিমান্তের জামালপুর ও ধর্মদহ গ্রামে পৃথক দু’টি ঘটনায় দুই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে দৌলতপুর থানা পুলিশ।
এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানাগেছে এলাকার প্রাগপুর ইউনিয়নের জামালপুর গ্রামের ভ্যান চালক শফি’র স্ত্রী এক সন্তানের জননী শ্যামলী আক্তার (২০) পারিবারিক কোলহের জের ধরে শুক্রবার রাতে বিষ পান করে, বাড়ীর লোকজন টের পেয়ে দৌলতপুর হাসপাতালে নিয়ে আসলে রাত ১২টার দিকে তার মৃত্যু হয়। গৃহবধূর শরীরে অসংখ মারপিটের দাগ ছিল, এ ছাড়া পাড়ার বখাখে ছেলেরা তাকে প্রায় উক্তত্য করতো বলে জানাগেছে। গৃহবধূর পিতার বাড়ী একই এলাকায়, তার পিতার নাম ইব্রহিম আলি।
অপর ঘটনা ঘটেছে সিমান্তের ধর্মদহ পশ্চিম পাড়া গ্রামে, পুলিশ ঝুলন্ত কিশোরী বধুর লাশ উদ্ধার করেছে, এলাকাবাসী জানায় কিশোরী বধূ আছান আলির কন্যা লিমা (১৪) ও শাহারুল আলমের পুত্র স্বামী মার্সিকুল (২২) এর বাল্য বিয়ে দেয় শখের বসবতি হয়ে, পরে তাদের মধ্যে বনিবনা না হলে শালিশ হয় গত শুক্রবার রাতে, শালিশের লোকজন মেয়ের মনের বিরুধ্যে স্বামীর ঘর করতে বাধ্য করায় কিশোরী বধূ শনিবার দুপুরে স্বামীর ঘরের আড়ার সাথে উরনা জড়ায়ে গলাই ফাঁস দিয়ে আত্বহত্যা করে বলে এলাকাসূত্রে জানাগেছে। পুলিশ লাশ দু’টি উদ্ধার করে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মর্গে পাঠিয়েছে। দৌলতপুর থানার ওসি শাহ দারা খান পিপিএম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন এবং ময়না তদন্তের পর তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান।
খন্দকার জালাল উদ্দীন
দৌলতপুর, কুষ্টিয়া।

LEAVE A REPLY