দুই সুন্দরীর দুলাভাই জিন্দাবাদ

0
141
print
আগামীকাল সারা দেশে শতাধিক প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত দুলাভাইজিন্দাবাদছবিটি। ছবিটির অন্যতম প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন মৌসুমী। সঙ্গে আছেন লাক্স সুন্দরী খ্যাত অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা মিম। তাঁদের সঙ্গে কথা বলে বিস্তারিত লিখেছেন শফিক আল মামুন
দুলাভাইজিন্দাবাদছবিতে অন্যতম প্রধান চরিত্রে অভিনয় করছেন মৌসুমী। তাঁর চরিত্রের নাম জোসনা। ছবির আরেক অভিনেতা ডিপজলের স্ত্রীর চরিত্র এটি। উপজেলা সদরের আশপাশের গ্রামগুলোতে বাল্যবিবাহ-সংক্রান্ত সচেতনতামূলক কাজ করে বেড়ায় এই জোসনা।

মুক্তির দিন কয়েক আগে এফডিসিতে বসে কথা হয় মৌসুমীর সঙ্গে। সেখানে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের একটি প্রচারণামূলক কাজের জন্য নির্মিত বিজ্ঞাপনের শুটিংয়ে ব্যস্ত ছিলেন।

এফডিসির ৯ নম্বর ফ্লোরের গ্রিনরুমে জমল আলাপ। মৌসুমী বললেন, ‘সচেতনতামূলক কাজ নিয়েই আছি। দুলাভাইজিন্দাবাদছবিটি মুক্তি পেতে যাচ্ছে। সেখানে আমার চরিত্রটির কাজ এমনটাই। আমরা যাঁরা সমাজের মোটামুটি পরিচিত মুখ, তাঁদের কাজে কিছুটা হলেও মানুষ প্রভাবিত হয়। এ কারণে এ রকম চরিত্রে কাজ করতে ভালো লাগে।’

 

মিম
২০১৬ সালে মৌসুমী অভিনীত পোস্টমাস্টার-৭১মুক্তি পেয়েছিল। এত দিন বাদে বাণিজ্যিক ধারার একাধিক শিল্পীর সঙ্গে বড় ক্যানভাসের ছবিতে দর্শকেরা প্রেক্ষাগৃহে দেখেছেন তাঁকে। জানতে চাইলাম, ছবিটি নিয়ে প্রত্যাশা কেমন? বললেন, ‘দীর্ঘ চলচ্চিত্রজীবনে এ ধরনের চরিত্রে খুব একটা কাজের সুযোগ হয়নি। এখানে আমার স্বামীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন ডিপজল। তাঁর একধরনের ভক্ত আছেন, আমারও আছেন। সব মিলে প্রত্যাশা ভালো।’

তাঁর মতে, ঢাকার চলচ্চিত্রে পারিবারিক গল্প নিয়ে একাধিক শিল্পীর ছবি দর্শক অনেক দিন দেখেনি। বড় পর্দার এই অভিনেত্রী বলেন, ‘আশি–নব্বইয়ের দশকে গ্রাম-গঞ্জের দর্শকেরা উপজেলা ও জেলা শহরের প্রেক্ষাগৃহে এ ধরনের গল্পের ছবি দেখতে ভিড় করত। মাঝে বহুদিন এ ধরনের গল্পের ছবি তৈরি হয়নি। একটা জেনারেশন এ ধরনের ছবি দেখার সুযোগ পায়নি। তাই নতুন প্রজন্মের দর্শকের কাছে ছবিটি পছন্দ হতে পারে। সঙ্গে মহিলা দর্শকও হলে আসবেন, এটা মনে হচ্ছে।’

দুলাভাইজিন্দাবাদ ছবিতে অভিনয় করেছেন বিদ্যা সিনহা মিম। ছবিতে মৌসুমীর ছোট বোনের চরিত্রে দেখা যাবে মিমকে। কথার ফাঁকে মিম সম্পর্কে মৌসুমী বললেন, ‘এই ছবির শুটিং চলাকালে মিমের সঙ্গে খুব একটা কাজ হয়নি আমার। তারপরও আমি যতটুকু কাছ থেকে দেখেছি, মানুষের কাছে জানতে পেরেছি, মিম কাজের প্রতি অত্যন্ত পেশাদার। বর্তমান সময়ে চলচ্চিত্রের তার মতো আরেকটা নায়িকাও আছে বলে মনে না।’

কথা বলতে বলতেই সংবাদ এল, নিচে তাঁর জন্য র‍্যাবের গাড়ি অপেক্ষা করছে। শুনেই খানিকটা ভড়কে গেলাম। পরিষ্কার করলেন তিনি। হাসতে হাসতে বললেন, ‘ওই যে বললাম না, সচেতনতামূলক কাজ নিয়েই আছি। এখন র‍্যাবের একটি অনুষ্ঠানে অংশ নিতে আমি আর সানি রওনা হব।’

 

দুলাভাই জিন্দাবাদ ছবির দৃশ্য
ছবিতে মিমের চরিত্রের নাম যমুনা। কলেজে পড়ে। থাকে বোন-দুলাভাইয়ের কাছে। মফস্বল অঞ্চলে এ ধরনের একটি মেয়ের চরিত্রে সচরাচর কাজ করা হয়নি মিমের। ছবিটি নিয়ে কথা বলতে যোগাযোগ করা হয় তাঁর সঙ্গে। তিনি তখন একটি আন্তর্জাতিক পণ্যের শোরুম উদ্বোধন করতে ওমানে অবস্থান করছিলেন। সেখান থেকে মুঠোফোনে বললেন, ‘আমার চরিত্রটি একটু চঞ্চল ধরনের। সারাক্ষণ সেজেগুজে থাকে যমুনা। ভ্যানচালক দুলাভাইকেই বাবার চোখে দেখে। মফস্বলের একটা মেয়ের গল্পই দেখবেন দর্শক।’

মিম আরও বলেন, ‘চরিত্রটি সহজ-সরল, মিষ্টি। খুব ভালো লেগেছে। আমার মনে হয়েছে, প্রেক্ষাগৃহে ছবিটি দেখতে বসে দর্শকেরা অন্য এক মিমকে আবিষ্কার করবেন।’

রাজেশ ফিল্মস প্রযোজিত দুলাভাইজিন্দাবাদছবিতে আরও অভিনয় করেছেন অমিত হাসান, নাদির খান, বাপ্পী চৌধুরী প্রমুখ

LEAVE A REPLY