টানা তৃতীয়বার বাফুফের সভাপতি সালাউদ্দিন

0
240
print
ভোট গ্রহণ শেষে কখন যে সভাপতি পদের ভোট গণনার কাজও শেষ, অনেকেই টেরই পাননি। কিন্তু খবরটা যখন এল, হোটেল র্যা ডিসনের চত্বরটা যেন আনন্দনগরী। টানা তৃতীয়বার বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সভাপতি পদে কাজী সালাউদ্দিন নির্বাচিত হওয়ায় তাঁর সমর্থকদের বুক থেকে কাল যেন নেমে গেল এক বিষম ভার।
সালাউদ্দিনের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চলেছে। হুমকি-ধমকি চলেছে, গুজব ছড়ানো হয়েছে প্রায় প্রতিদিনই। এমনকি গতকাল নির্বাচনের দিনও সকাল থেকে শোনা যাচ্ছিল, সালাউদ্দিন শেষ। তাঁর আর নির্বাচিত হওয়ার সম্ভাবনা নেই। কিন্তু সব বাধা পেরিয়ে বিজয় ছিনিয়ে নিলেন সালাউদ্দিন। আরেকবার দেখালেন কেন তিনি বাংলাদেশের ফুটবলে সবার চেয়ে আলাদা হয়ে আছেন আজও। জয়টাও উল্লেখ করার মতো। ১৩৪ জন ভোটারের সবাই ভোট দিয়েছেন। বাফুফের এই নির্বাচন কতটা গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছিল, ভোটারের উপস্থিতিই সেটির প্রমাণ। সালাউদ্দিন পেয়েছেন ৮৩ ভোট। প্রতিপক্ষ ‘বাঁচাও ফুটবল’ পরিষদের প্রার্থী সাংসদ কামরুল আশরাফ খানের নামের পাশে ৫০ ভোট। বাতিল হয়েছে বাকি একটি ভোট।
সালাউদ্দিনের পুনর্নির্বাচিত হওয়ার পেছনে বড় ভূমিকা রেখেছে ফুটবলার হিসেবে তাঁর বিশাল পরিচিতি ও প্রভাব। দেশের ফুটবলের সবচেয়ে বড় তারকার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী এই অঙ্গনের বাইরের মানুষ। বাংলাদেশ সার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি। নির্বাচন উপলক্ষে দৃশ্যপটে তাঁকে আনা হয়েছিল, কিন্তু বেশির ভাগ ভোটার সালাউদ্দিনের পক্ষ নিয়ে একটা বার্তাই দিলেন, এখনো পর্যন্ত সালাউদ্দিনই বাফুফের সভাপতির চেয়ারে যোগ্যতম লোক।
সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের পারফরম্যান্স বেশ খারাপ। যে কারণে সালাউদ্দিনের তীব্র সমালোচনা হয়েছে। তবে গত আট বছর বাফুফে সভাপতি হিসেবে অনেক কিছুই করেছেন, মাঠে ফুটবল রেখেছেন। অসমাপ্ত কাজ শেষ করার জন্য তৃতীয় মেয়াদে নির্বাচনে দাঁড়িয়ে নানা প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। ভীষণ উত্তাপ ছড়ানো এই নির্বাচনে ভোটাররা তাঁকে বিমুখ করেননি।
শুধু নিজে জিতে আসেননি, ১টি সহসভাপতি ও ৩টি সদস্যপদ বাদে বাকি ১৫ পদে নিরঙ্কুশ জয় পেয়েছে সালাউদ্দিনের পরিষদ। তাঁর পরিষদ থেকে বিজয়ী তিন সহসভাপতি কাজী নাবিল আহমেদ, বাদল রায় ও মহিউদ্দিন মহি। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সহসভাপতি পদে পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন ঢাকার গত মেয়র নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী তাবিথ আউয়াল। ফুটবল বাঁচাও পরিষদ পেয়েছে মাত্র দুটি সদস্যপদ। একজন স্বতন্ত্র সদস্য প্রার্থীও বিজয়ী হয়েছেন।
সবাইকে ছাপিয়ে সালাউদ্দিনের জয়টাই অবশ্য সবার মুখে মুখে। মাঠে যেমন সব আলো কাড়তেন, নির্বাচনের মাঠেও সব আলো তাঁরই ওপর থাকল।

LEAVE A REPLY