জামিন পেলেন সেই সমালোচিত ধর্মগুরু রাম রহিম

ভারতের পঞ্চকুলার সিবিআই আদালত থেকে সমালোচিত ধর্মগুরু বাবা গুরমিত রাম রহিম জামিন পেলেন। অভিযোগ ছিল তার ডেরায় থাকা প্রায় ৪০০ পুরুষের অণ্ডকোষ জোর করে কেটে বাদ দিয়েছেন। এ মামলার ভার দেয়া হয়েছিল সিবিআইকে। আজ শুক্রবার সেই মামলায় জামিন মঞ্জুর হলো ডেরা সাচ্চা সউদা প্রধান রাম রহিমের। খবর জিনিউজ।

তবে মামলার জামিন পেলেও জেল থেকে রেহাই পাচ্ছেন না রাম রহিম। ডেরার দুই শিষ্যকে ধর্ষণের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। আদালতের তরফ থেকে তাকে ২০ বছরের কারাদণ্ডের শাস্তি দেয়া হয়েছে। আপাতত সেই শাস্তি বহাল থাকছে।

২৩ আগস্ট সিবিআইয়ের স্পেশাল জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রাম রহিমের জামিনের আবেদন খারিজ করেছিল। এরপরই সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সিবিআই বিচারক জগদীপ সিংয়ের কাছে আবেদন করেন রাম রহিম।

পঞ্চকুলা সিবিআই আদালতে রাম রহিমের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির একাধিক ধারায় মামলা রুজু হয়েছে। ইতিমধ্যে চার্জশিট দেয়া হয়েছে। তবে আপাতত ৪০০ পুরুষের অণ্ডকোষ কেটে ফেলার অভিযোগের মামলায় তিনি জামিন পেলেন।

রাম রহিম দুই ডাক্তারের সঙ্গে মিলে এমন কাজ করতেন বলে অভিযোগ উঠেছিল। আর সেই দুই ডাক্তারের বিরুদ্ধেও মামলা চলছে।