‘জঙ্গি দমনে বিশ্বে বাংলাদেশ রোল মডেল’

0
251
print
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশের অগ্রগতি ও নিরাপত্তার জন্য সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বড় ধরনের অন্তরায়। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর জঙ্গি দমনে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতির ভিত্তিতে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। জঙ্গি দমনে সারা বিশ্বে বাংলাদেশ আজ ‘রোল মডেল’ হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে।

জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশনে আজ বুধবারের বৈঠকে টেবিলে উত্থাপিত প্রশ্নোত্তর পর্বে গোলাম দস্তগীর গাজীর (নারায়ণগঞ্জ-১) প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন।

এর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে ঈদুল ফিতরের আগে মূলতবী হওয়া অধিবেশনের বৈঠক শুরু হয় বিকেল ৪টা ৫ মিনিটে।

জঙ্গি দমনে সরকারের নানা সফলতার কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট গঠন করেছি। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে সাম্প্রতিক সময়ে আইনশঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বেশ কিছু সফল অভিযান পরিচালনার ফলে শীর্ষস্থানীয় জঙ্গিনেতাসহ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সদস্য গ্রেফতার ও নিহত হয়েছে। বিপুল পরিমাণ অস্ত্র, গোলা-বারুদ উদ্ধার হয়েছে। হলি আর্টিজান হামলার পর এ যাবত যতগুলো অপারেশন পরিচালিত হয়েছে তার সবগুলো থেকেই জঙ্গিগোষ্ঠি আঘাত হানার পূর্বেই আমাদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদের পরিকল্পনা নস্যাত করে দিয়েছে এবং জঙ্গি আস্তানাসমূহ গুড়িয়ে দিয়েছে। জঙ্গি দমনে বাংলাদেশ প্রে-অ্যাক্টিভ পুলিশিং এর একটি উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। অভিযানসমূহ পরিচালনার ফলে বর্তমানে জঙ্গি তৎপরতা বহুলাংশে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয়েছে এবং জঙ্গি দমনে এ সাফল আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে দেশের ভাবমুর্তি উজ্জল করেছে।

সৌদি সরকারের অর্থায়নে জেলা-উপজেলায় ৫৬০ মডেল মসজিদ
চট্টগ্রাম-৩ আসনের এমপি মাহফুজুর রহমানের এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী সৌদি আরব সরকারের অর্থায়নে ‘প্রতি জেলা ও উপজেলায় একটি করে ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র স্থাপন’ শীর্ষক একটি প্রকল্প গত ২৫ এপ্রিল একনেক সভায় অনুমোদিত হয়েছে। এ প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের প্রত্যেক জেলা ও উপজেলায় একটি করে মডেল মসজিদ নির্মাণ করা হবে।

LEAVE A REPLY