ছিনতাইয়ের পর ট্রেনের ছাদ থেকে ফেলে দেয় শিক্ষার্থীকে।

    রাজধানীর বনানীতে চলন্ত ট্রেনে ছিনতাইয়ের শিকার হয়েছেন এক কলেজছাত্র। ছিনতাইকারীরা অস্ত্রে দেখিয়ে মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে তাকে ট্রেনের ছাদ থেকে ফেলে দেয়। সোমবার রাতে বনানী চেয়ারম্যান বাড়ি এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

    ছিনতাইয়ের শিকার ইসমাইল হোসেনের গ্রামের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার পশ্চিম কুট্টারপুর গ্রাম। তিনি ওই গ্রামের আসমত আলীর ছেলে এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র।

    ইসমাইলের বরাত দিয়ে তেজগাঁওয়ের স্টেশন অফিসার রতন রায় সাংবাদিকদের বলেন, বনানী চেয়ারম্যান বাড়ি এলাকার রেললাইনের পাশে অচেতন অবস্থায় পড়েছিল ইসমাইল। খবর পেয়ে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে সেখানে তার জ্ঞান ফিরে।

    তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জে এক বন্ধুর বাসায় যাওয়ার উদ্দেশে ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে ট্রেনের ছাদে করে ঢাকায় আসছিলেন ইসমাইল। ট্রেনটি ক্যান্টনমেন্ট অতিক্রম করলে দুই থেকে তিন ছিনতাইকারী ব্লেডের ভয় দেখিয়ে তার দু’টি স্মার্টফোন কেড়ে নেয়। এরপর তারা চলন্ত ট্রেন থেকে তাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। এতে তার মাথায় আঘাত লাগে। তবে বর্তমানে ইসমাইলের অবস্থা আশঙ্কামুক্ত।