গ্রিজমান নৈপুণ্যে ইউরোপা লিগ শিরোপা আতলেতিকোর

    আতলেতিকো মাদ্রিদের ফরাসি স্ট্রাইকার আঁতোয়া গ্রিজমান। তাকে নিয়ে জোর গুজব, চলতি মৌসুম শেষে যোগ দিচ্ছেন স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনায়। তথ্যটি কতটা সত্য তা জানা যাবে কিছুদিন পরই। তবে যদি আসলেই সত্য হয় তবে বিদায়ের আগে আতলেতিকোকে বড় একটি উপহারই দিয়ে যাচ্ছেন। তার জোড়া গোলেই অলিম্পিক মার্শেইকে হারিয়ে দলটি জিতেছে ইউরোপা লিগ শিরোপা। ৩-০ গোলের এই জয় তাদের এনে দিয়েছে মৌসুমের একমাত্র শিরোপা।

    এই নিয়ে তৃতীয়বারের মত ইউরোপা লিগের চ্যাম্পিয়ন হয়েছে আতলেতিকো। তারা বসেছে লিভারপুল, জুভেন্তাস ও ইন্তার মিলানের পাশে। সামনে শুধু আছে রেকর্ড পাঁচবারের বিজয়ী স্প্যানিশ ক্লাব সেভিয়া।

    খেলা হয়েছে মার্শেইয়ের ঘরের মাঠ পার্ক অলিম্পিক লিওনেসে। শুরুতেই এগিয়ে যাওয়ার একাধিক সুযোগ পেয়েছিল মার্শেই। তবে দলটি বল জালে জড়াতে পারেনি। ম্যাচের ২১ মিনিটে প্রতিপক্ষের ভুলে এগিয়ে যায় আতলেতিকো। মার্শেই গোলরক্ষক স্তিভ মান্দানার পাস নিয়ন্ত্রণ করতে ব্যর্থ হন মিডফিল্ডার জাম্বো আঙ্গিসো। তার কাছ থেকে বল পেয়ে আতলেতিকো অধিনায়ক গাবি থ্রু পাস দেন গ্রিজমানকে। ডি-বক্সের ভেতরে ঢুকে মার্শেই গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন এই ২৭ বছর বয়সী স্ট্রাইকার।

    ৩১ মিনিটে মার্শেই অধিনায়ক ও ফরাসি মিডফিল্ডার পায়েত চোট নিয়ে মাঠ ছাড়েন। তার বিশ্বকাপে অংশ নেয়াটাই এখন শঙ্কার মুখে। প্রথমার্ধে এরো বেশ কয়েকটি সুযোগ পেয়েছিল দু’দলই। কিন্তু কেউই আর কোন গোল করতে পারেনি।

    ৪৯ মিনিটে আবার গোল করেন গ্রিজমান। মার্শেই ডি-বক্সের ভেতরে ঢুকে আগুয়ান গোলরক্ষকের উপর দিয়ে বল জালে জড়ান তিনি। অ্যাসিস্ট করেছিলেন স্প্যানিশ মিডফিল্ডার কোকে। সব মিলিয়ে চলতি মৌসুমে এটি ছিল গ্রিজমানের ২৯তম গোল।

    ৮৯ মিনিটে মার্শেইয়ের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠোকেন গাবি। কোকের বাড়ানো বল থেকে গোল করেন এই মিডফিল্ডার। শেষ পর্যন্ত ৩-০ গোলেই ম্যাচটি জেতে আতলেতিকো। সর্বশেষ ২০১২ সালে এই শিরোপা জিতেছিল দলটি।