কেন মন খারাপ করলেন‘বেবি ডল’ খ্যাত সানি লিওন ?

বলিউডে বেশ পাকাপোক্ত অবস্থানেই রয়েছেন সানি লিওন। ‘বিগ বস’ এর মাধ্যমেই অভিষেক হয়েছিলো তার। তবে ‘বেবি ডল’ খ্যাত এই তারকাকে নিয়ে সদ্য মুক্তি পেয়েছে ওয়েব সিরিজ ‘করণজিৎ কউর: দ্য আনটোল্ড স্টোরি অফ সানি লিওন’।

তবে বায়োপিক দেখে মন খারাপ হয়েছে সানির। কিন্তু দর্শক মহলে মিশ্র প্রতিক্রিয়া রয়েছে। কেউ বলছেন, সত্যিটা সামনে এসেছে। আবার কারো মনে হয়েছে, সানির জীবনের অনেক ঘটনাই নাকি দেখানো হয়নি।

কিন্তু মন খারাপের কারণ হলো, সানির মা মারা যান ২০০৮ সালে। এরপর ক্যানসারে দীর্ঘ দিন অসুস্থ থাকার পর ২০১০ সালে মারা যান সানির বাবা। বায়োপিকে সেটা দেখেই নাকি মন খারাপ হয়ে গিয়েছে এই তারকার। সম্প্রতি মিড ডেকে দেয়া এক সাক্ষাত্কারে এমনটিই জানিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, বায়োপিকে যারা অভিনয় করেছেন তারা আমার আসল বাবা-মা নন। কিন্তু অনস্ক্রিন বাবাকে ক্যানসারে ভুগতে দেখা বা অনস্ক্রিন মাকে কফিনে শুয়ে থাকতে দেখাটা মেনে নেয়া সহজ নয়। বাবা-মা চলে যাওয়ার পর ভেবেছিলাম সত্যিটা মেনে নিতে পারব। কিন্তু সত্যিটা বোধহয় এখনও মানতে পারি না।

কেন তিনি পর্নোগ্রাফিকে পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছিলেন? কানাডাবাসী মধ্যবিত্ত এক শিখ পরিবারের মেয়ে কীভাবে পর্ন ইন্ডাস্ট্রিতে জনপ্রিয়তা তৈরি করেছিলেন? কীভাবে তা থেকে বেরিয়ে বলিউডের মতো প্লাটফর্মে জায়গা করে নিলেন? সেই গল্পই তুলে আনা হয়েছে ‘করণজিৎ কউর: দ্য আনটোল্ড স্টোরি অফ সানি লিওন’।

এদিকে বর্তমানে বলিউডসহ সারাবিশ্বে এখন বেশ জনপ্রিয় তারকা সানি লিওন। অভিনয়ের পাশাপাশি করছেন সঞ্চালনাও। ইতোমধ্যে তিন সন্তানের মা হয়েছেন।