কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি :
কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী লাঠি খেলা, দাঁড়িয়াবন্ধা ও ঘৌড়দৌড়ের তিন দিনব্যাপী প্রতিযোগিতার ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়েচে।
বৃহস্পতিবার বিকালে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলা সদরের নীলকুমর নদ ও ফুলসাগর সংলগ্ন চেয়ারম্যান পাড়ায় জমির ফাকা মাঠে এ খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ফাইনাল খেলা দেখতে চেয়ারম্যান পাড়ায় হাজার হাজার নারী-পুরুষের উপস্থিত হয়। দুই পর্বের খেলায় ছাত্তক ঘোড়দৌড়ে চ্যাম্পিয়ন হয় নাগেশ্বরী উপজেলার নাখারগঞ্জ চাঁরদর হাটের আব্দুল আলীম ও কদম ঘোড়দৌড়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে নাগেশ্বরীর কঁচাকাটার আব্দুল হামিদ।
প্রতিযোগীতায় বিজয়ী প্রথম স্থান অধিকারীকে ১টি গরু, দ্বিতীয় স্থান অধিকারীকে পুরষ্কার হিসেবে ১টি ছাগল (খাসি) ও তৃতীয় স্থান অধিকারীকে ১টি স্মার্ট ফোনের সমপরিমান টাকা প্রদান করা হয়েছে। খেলা শেষে পুরষ্কার বিতরন করেন ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালের সাবেক পরিচালক ডাঃ হামিদুল হক ও ফুলবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হারুন-উর-রশিদ হারুন।
বিলুপ্তপ্রায় গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী লাঠি খেলা, দাঁড়িয়াবন্ধা খেলা ও ঘৌড়দৌড় খেলা হারিয়ে যেতে বসলেও এটিকে জীবিত রাখতে প্রতিবছরের শীত মৌসূম এলেই ফুলবাড়ী উপজেলা সদরের নীলকুমর নদ ও ফুলসাগর সংলগ্ন চেয়ারম্যান পাড়ার ক্রীড়ামনা মানুষরা আয়োজন করে এসব খেলার। তারা নিজের অর্থ ও শ্রম মেধা কাজে লাগিয়ে খেলাগুলো ক্রীড়ামনা দর্শকদের মাঝে উপস্থাপন করে থাকেন। তাদের লক্ষ্য হলো- নতুন প্রজন্মকে ঐতিহ্যবাহী এ খেলাগুলো সম্পর্কে ধারনা দেয়া। এরই ধরাবাহিকতায় অন্যান্য বারের মতো এবারও শীত মৌসূমে চেয়ারম্যান পাড়ায় ২৬ ডিসেম্বর শুরু করা হয় তিন দিনব্যাপী লাঠি খেলা, দাঁড়িয়াবন্ধা ও ঘৌড়দৌড় প্রতিযোগীতার। এসব খেলার পরিচালক ছিলেন ফুলবাড়ী বালিকা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের অবসরপাপ্ত অফিস সহকারী ও ক্রীড়ামনা ব্যক্তিত্ব মুক্তিযোদ্ধা সুরতজামাল।