করাচি ও লাহোর বিমানবন্দর বন্ধ ঘোষণা

0
257
print
পাকিস্তান করাচি ও লাহোর বিমানবন্দর আগামী ৮ অক্টোবর থেকে বন্ধ ঘোষণা করেছে পাকিস্তান। ‘অপারেশনাল রিজন’ দেখিয়ে ১৩ দিনের জন্য এই দুটি বিমানবন্দর বন্ধ রাখার এক বিবৃতিতে প্রকাশ করেছে। প্রতিদিন ১৮ ঘণ্টার জন্য বন্ধ থাকবে ওই দুটি বিমানবন্দর। এর মাধ্যমে কার্যত সব ধরনের বাণিজ্যিক ফ্লাইট বন্ধ হয়ে যাবে এ দুটি বিমানবন্দরে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

পাকিস্তানের এ সিদ্ধান্তকে সন্দেহের চোখে দেখছে ভারত।

ভারতের একটি এয়ারলাইন্সের আন্তর্জাতিক রুট পরিকল্পনাকারী জ্যেষ্ঠ এক কর্মকর্তা জানান, পুরো বিমানবন্দর এলাকাকে খালি করা জন্য এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। যাতে তারা সব যুদ্ধবিমানকে এনে জড়ো করতে পারে এবং যুদ্ধ শুরু হলে সেটাকে কাজে লাগাতে পারে।

তিনি আরও জানান, এই কৌশলটি ভারতকে লক্ষ্য করেই নেয়া হয়েছে। করাচি বিমানবন্দরটি ভারতের রাজস্থান এবং গুজরাট সীমান্তের খুব কাছাকাছি। আর লাহোর বিমানবন্দরটি জম্মু ও কাশ্মির এবং পাঞ্জাব সীমান্তের খুব কাছে অবস্থিত।

অন্য আরেকজন কমান্ডার জানান, পাকিস্তানের পারমাণবিক স্থাপনাগুলো লাহোরের পাশেই অবস্থিত। করাচি এবং লাহোর বিমানবন্দরে নিষেধাজ্ঞার মানে হচ্ছে পাকিস্তান এখানে বিমান মহড়া চালাবে। আর এটি ভারতের জন্য যথেষ্ঠ উদ্বেগের কারণ।

বিমানবন্দর বন্ধ করে পাকিস্তানের সামরিক বাহিনীর মহড়া নতুন নয়। তবে সাম্প্রতিক সময়ের মধ্যে প্রথমবারের মতো এত দীর্ঘ সময় নিজেদের সবচেয়ে ব্যস্ত দুটি বিমানবন্দর বন্ধ রাখছে পাকিস্তান।বিষয়টি বেশ ভাবাচ্ছে ভারতকে। কারণ ভারতের সঙ্গে সম্পর্কের চরম অবণতির সময়টাকেই নিজেদের সবচেয়ে ব্যস্ত বিমানবন্দর দুটি বন্ধ রাখার জন্য বেছে নিয়েছে পাকিস্তান।

LEAVE A REPLY