এভাবে বাঁচা যায় না বলে স্ত্রী-সন্তানকে খুন, আত্মহত্যার চেষ্টা

ঋণগ্রস্ত হয়ে স্ত্রী ও মেয়েকে খুন করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন এক ব্যক্তি।

সোমবার বিকালে ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তর ২৪ পরগনার হাবড়ার মছলন্দপুর-১ নম্বর পঞ্চায়েতের বিশ্বাসহাটি এলাকায়।

নিহত দুজন হলেন- মিঠু দেবনাথ (৩৫) ও তার মেয়ে পূজা।

আনন্দবাজারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সোমবার সকালে পূজার এএসসি পরীক্ষা ছিল। কিন্তু তাকে পরীক্ষা দিতে যেতে দেখা যায়নি। দেখা মেলেনি পূজার মা মিঠু দেবনাথেরও।

এ ঘটনায় সন্দেহ হয়েছিল প্রতিবেশীদের। এ ব্যাপারে তারা পূজার বাবা শেখরকে প্রশ্ন করলে প্রথমে আমতা আমতা করেন তিনি। পরে বাড়ির মধ্যে ঢুকে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন শেখর। প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এ সময় প্রতিবেশীরা ঘরের মধ্যে গন্ধটা পান। পরে পুলিশকে খবর দিলে মা ও মেয়ের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

প্রতিবেশীদের ভাষ্য, বাড়ি করতে গিয়ে অনেক ঋণ হয়েছিল শেখরের। এ কারণে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন তিনি।

শেখরের স্বীকারোক্তি, ‘এভাবে বাঁচা যায় না। আমি মরে গেলে ওদের কী হতো। তাই এই পথ বেছে নিতে বাধ্য হয়েছিলাম।’