প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার প্রথম দিনে প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান বলেছেন, প্রশ্নপত্র ফাঁস গুজব ছাড়া কিছু নয়, কেউ কেউ গুজব ছড়াতে প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ তুলছেন। এবার প্রশ্নপত্র ফাঁসের কোনো সুযোগ নেই।

রোববার রাজধানীর মতিঝিলের আইডিয়াল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, এখন পর্যন্ত কোনো মন্দ খবর শোনা যায়নি। সারাদেশে শান্তিপূর্ণ ও সুশৃংখলভাবে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

এর আগে মন্ত্রী, সচিব, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও কয়েকজন কর্মকর্তা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন। রোববার শুরু হওয়া এই পরীক্ষা শেষ হবে আগামী ২৬ নভেম্বর।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী বলেন, এবার মোবাইলে প্রশ্নপত্রের ছবি তোলার সুযোগ নেই। পরীক্ষার কেন্দ্র থেকে প্রশ্ন বাইরে চলে যাওয়ার একটা মাধ্যম হলো মোবাইল ফোন। কিন্তু এবার কোনো শিক্ষক মোবাইল ফোন নিয়ে কেন্দ্রে ঢুকতে পারবেন না। কেউ যদি ভুল করেও নিয়ে আসেন, সেটা প্রধান শিক্ষকের কক্ষে রেখে যেতে হবে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের হিসাব অনুযায়ী, দেশের ভেতরের ৭ হাজার ২৬৭টি এবং দেশের বাইরের ১২টি কেন্দ্রে এ বছর প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে। এবার মোট ৩০ লাখ ৯৬ হাজার ৭৫ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করছে। প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীতে পরীক্ষার্থী ২৮ লাখ ৪ হাজার ৫০৯ জন। এর মধ্যে ছাত্রী ১৫ লাখ ৪ হাজার ৫২৪ জন এবং ছাত্র ১২ লাখ ৯৯ হাজার ৯৮৫ জন। ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় এবার অংশ নিচ্ছে ২ লাখ ৯১ হাজার ৫৬৬ জন।