একুশের নাটক ‘বর্ণ ব্যঞ্জন’

জনবিচ্ছিন্ন চর অঞ্চলের সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের ভাষা শেখানোর জন্য একটি পাঠশালা শুরু করতে চায় উন্নয়ন সংস্থার কর্মী দীপা ও শিমুল। স্বেচ্ছাসেবী ডাক্তার মাহমুদের সহায়তায় তারা শুরু করে ‘বর্ণ ব্যঞ্জন’ পাঠশালা। কিন্তু বাধা হয়ে দাঁড়ায় ভূমিদস্যু আইনুল পোদ্দার।

তৌফিক এলাহীর রচনা ও পরিচালনায় এমনই গল্প নিয়ে একুশের বিশেষ নাটক ‘বর্ণ ব্যঞ্জন’ নির্মিত হয়েছে।

পরিচালক বলেন, ‘মহান একুশের চেতনা আমাদের বাংলা ভাষা, দেশ ও জাতীয়তাবোধের এক অনন্য ইতিহাস। একুশের ভাষা আন্দোলন আমাদের সাংস্কৃতিক পরিচিতির স্মারক স্মৃতিও বটে। প্রতিবছর এই মহিমান্বিত দিনটিকে জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে পালন করা হচ্ছে। তবে একুশের চেতনা থেকে দেশের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর একটা বড় অংশ অজ্ঞাত রয়েই যাচ্ছে। সে ভাবনা থেকে নাটকটি বানানো।’

নাটকটিতে সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের মাঝে একুশের চেতনা ও শিক্ষার সুযোগ বিকাশে সচেতনতা সৃষ্টির চেষ্টা করা হয়েছে।

বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন সোহানা সাবা, মাজনুন মিজান, আরমান পারভেজ মুরাদ, নাবিলা ইসলাম প্রমুখ।

‘বর্ণ ব্যঞ্জন’ মাছরাঙা টেলিভিশনে ২১ ফেব্রুয়ারি রাত ৮টায় দেখা যাবে।