ইফতারে ৭টি মজাদার শরবত, যেভাবেন তৈরি করবেন

ইফতারে ভাজা পোড়ার সঙ্গে সবাই শরবত খেতে পছন্দ করেন। কিন্তু বিভিন্ন শরবতের রেসিপি না জানার কারণে প্রায় সব দিন একই শরবত দিয়ে ইফতার করতে হয়। তাই ইফতারে চাই রকমারি শরবত। শরবত তৈরির আজ আপনাদের জন্য রয়েছে সাতটি শরবতের রেসিপি।
১. আম চিড়ার শরবত
উপকরণ:
আম বড় ১ টি, চিড়া ১/২ কাপ (ধুয়ে ভালো করে এক চিমটি লবণ মাখিয়ে পানিতে ভিজায় রাখুন), চিনি ৪ -৫ টেবিল চামচ ( যতটুকু নিতে চান ), ২ ফোটা ভ্যানিলা এসেন্স ও পানি ৪ গ্লাস।
পদ্ধতি :
প্রথমে সব উপকরণ তৈরি করে নিন। আম ছিলে টুকরা করে নিন। এবার সব উপকরণ একসাথে ব্লেন্ডারে দিয়ে ভালো করে ব্লেন্ড করে নিন। মিষ্টি চেক করে দেখুন।
পানি একসাথে ব্লেন্ডারে না ধরলে অসুবিধা নেই। পরে পানি দিয়ে জগে করে মিশাতে পারবেন। নরমাল ফ্রিজে রেখে দিন। ইফতারের সময় হলে গ্লাসে ঢেলে পরিবেশন করুন মজাদার ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা আম চিড়ার সরবত।

২. জামের শরবত
উপকরণ:
১ কাপ জাম, ১ কাপ পানি, ১ টেবিল-চামচ চিনি, আধা চা-চামচের একটু কম লবণ, ১ চা-চামচ লেবুর রস, অর্ধেক কাঁচামরিচ ও পুদিনাপাতা-কুচি।
প্রণালি:
জামের বীজ ছাড়িয়ে নিন। বাকি সব উপকরণ আর জাম একসঙ্গে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। চাইলে ছেঁকে নিন অথবা না ছেঁকে নিলেও হবে। ফ্রিজে রেখে দিন ঠাণ্ডা হওয়ার জন্য। ঠাণ্ডা হলে ইফতারে পরিবেশন করুন।

৩. পুদিনা লেবুর শরবত:
উপকরণ:
মিডিয়াম লেবু ১টি, পুদিনা পাতা ৩ টেবিল চামচ, লবণ ১ চিমটি, চিনি ৪টেবিল চামচ ( মিষ্টি পছন্দ মত), ঠাণ্ডা পানি দুই গ্লাস, বরফ কিউব (ইচ্ছা মত)।যেভাবে করতে হবে: প্রথমে পুদিনা পাতা পরিস্কার করে পানিতে ধুয়ে নিন। লেবু কেটে রস করে নিন।এখন ব্লেন্ডারে বরফ ছাড়া বাকি সব উপকরণ নিয়ে ব্লেন্ড করুন। ব্যাস এখন ছেকেঁ নিন। পরিবেশনের গ্লাসে ঢেলে নিন। বরফ কিউব দিন উপরে পুদিনা পাতা দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন ঠান্ডা ঠান্ডা পুদিনা – লেবুর শরবত।

৪. শাহি পেস্তার শরবত:
উপকরণ : দুধ ১ লিটার, পেস্তা বাদাম ১৫/২০টি, সবুজ ফুড কালার ২/৩ ফোঁটা, গোলাপজল ১ টেবিল চামচ, জাফরান সামান্য, চিনি আধা কাপ বা প্রয়োজনমতো।
প্রস্তুত প্রণালি : দুধ জ্বাল দিয়ে ঘন করে নিন। পেস্তা বাদাম বেটে নিন। এবার দুধ চুলায় দিয়ে তাতে চিনি, বাদাম বাটা, পেস্তাবাদাম বাটা, ফুড কালার ও গোলাপজল

৫. রুহ্ আফজার শরবত:
উপকরণ : রুহ্ আফজা আধা কাপ, লেবুর রস ১টি, চিনি দেড় কাপ, ইসবগুলের ভুসি ১ টেবিল চামচ, বরফ কুচি ইচ্ছামতো, পানি-২ গ্গ্নাস।
প্রস্তুত প্রণালি : ইসবগুলের ভুসি ছাড়া সব উপকরণ একসঙ্গে ব্লেন্ড করে নিন। পরিবেশনের আগে বরফ কুচি ও ইসবগুলের ভুসি দিয়ে পরিবেশন করুন।

৬. তেঁতুলের শরবত:
উপকরণ : তেঁতুলের কস্ফাথ আধা কাপ, চিনি পৌনে এক কাপ, লবণ পরিমাণমতো, জিরা টালা গুঁড়া ১ চা চামচ, শুকনা মরিচ টালা গুঁড়া এক-চতুর্থাংশ চা চামচ, পানি পরিমাণমতো, বরফ পরিবেশনের জন্য, রুহ্ আফজা ২ চা চামচ।প্রস্তুত প্রণালি : পরিমাণমতো পানি দিয়ে সব উপকরণ নিয়ে ব্লেন্ড করুন। বরফ কুচি দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

৭. শসার শরবত:
উপকরণ : শসা কুচি ১ কাপ, পানি ২ কাপ, ধনে পাতা কুচি ১ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণমতো, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ, বিট লবণ আধা চা চামচ, কাঁচামরিচ কুচি ১টি, বরফ কুচি পরিমাণমতো। প্রস্তুত প্রণালি : বরফ ছাড়া সব উপকরণ একসঙ্গে ব্লেন্ড করে নিন। ছেঁকে নিন। গ্গ্নাসে ঢেলে বরফ কুচি দিয়ে পরিবেশন করুন।