অনলাইন ডেস্ক
খ্যাতিমান গীতিকার, সুরকার, সংগীত পরিচালক ও মুক্তিযোদ্ধা আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তার হার্টে ৮টি ব্লক ধরা পড়েছে। চিকিৎসার জন্য রাজধানীর ইব্রাহিম কার্ডিয়াক হাসপাতালে ভর্তিও ছিলেন তিনি। চিকিৎসকের পরামর্শে আগামী দশ দিনের মধ্যে তার হার্টে বাইপাস সার্জারি করা হবে।
বুধবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে এসব তথ্য নিজেই জানিয়েছেন আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল।
ফেসবুকে স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন, ‌‌‘সরকারের নির্দেশেই ২০১২ সালে আমাকে যুদ্ধাপরাধীর ট্রাইব্যুনালের কাঠগড়ায় সাক্ষী হিসাবে দাঁড়াতে হয়েছিল। সাহসিকতার সঙ্গে সাক্ষ্যপ্রমাণ দিতে হয়েছিল ১৯৭১ সালে ঘটে যাওয়া ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলখানার গণহত্যার সম্পূর্ণ ইতিহাস। কিন্তু ওই সাক্ষী দেওয়ার কারণে আমার নিরপরাধ ছোটো ভাই মিরাজ খুন হয়ে যাবে তা আমি কখনোই বিশ্বাস করতে পারিনি। সরকারের কাছে বিচার চেয়েছি, বিচার পাইনি। আমি এখন ২৪ ঘণ্টা পুলিশ পাহারায় গৃহবন্দি থাকি একমাত্র সন্তানকে নিয়ে। এ এক অভূতপূর্ব করুণ অধ্যায়।’

একটি ঘরে ৬ বছর গৃহবন্দি থাকতে থাকতে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন জানিয়ে ইমতিয়াজ বুলবুল লিখেছেন, ‘আমার হার্টে ৮ টা ব্লক ধরা পড়েছে এবং বাইপাস ছাড়া চিকিৎসা সম্ভব না। আগামী ১০ দিনের মধ্যে আমি আমার হার্টের বাইপাস সার্জারি করাতে প্রস্তুত রয়েছি।’
চিকিৎসার জন্য কারও কাছ থেকে কোনো সহযোগিতা লাগবে না জানিয়ে তিনি লিখেছেন, ‘কোনো সরকারি সাহায্য বা শিল্পী, বন্ধু-বান্ধবের সাহায্য আমার দরকার নেই। আমি একাই যথেষ্ট (শুধু অপারেশনের আগে ১০ সেকেন্ডের জন্য বুকের মাঝে বাংলাদেশের পতাকা এবং কোরআন শরীফ রাখতে চাই)। আর সকলের দোয়া চাই।’